ইভ্যালি প্রতিষ্ঠার আগে রাসেলের নেপথ্যের গল্প

ঢাকা, রোববার   ১৭ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ৩ ১৪২৮,   ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ইভ্যালি প্রতিষ্ঠার আগে রাসেলের নেপথ্যের গল্প

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:৪৫ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৩:৫৫ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

রাসেল। ফাইল ছবি

রাসেল। ফাইল ছবি

গ্রাহকের নানা অভিযোগে বহুল আলোচিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মোহাম্মদ রাসেলকে এরই মধ্যে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। এই ই-কমার্স থেকে প্রতারণার শিকার হয়েছেন, এমন এক গ্রাহকের মামলার প্রেক্ষিতে গতকাল রাসেল ও তার স্ত্রীকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারের পর শুক্রবার সকালে র‍্যাবের লিগ্যাল আ্যন্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন গণমাম্যমে ইভ্যালি সম্পর্কে নানা চাঞ্চল্যকর তথ্য জানিয়েছেন।

এদিকে গ্রেফতারের পর রাসেল ও তার স্ত্রী প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনকে নিয়ে উঠেছে নানা অভিযোগ।  প্রতারিত বহু গ্রাহক ইভ্যালির বিজনেস পলিসি নিয়েও নানা কথা বলছেন। তাদের অভিযোগে রাসেলের ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান চালানোর সক্ষমতার দিকটিও উঠে আসে। 

গ্রেফতারদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাতে র‌্যাবের লিগ্যাল আ্যন্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান, রাসেল ২০০৭ সালে একটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স এবং পরবর্তীতে ২০১৩ সালে এমবিএ সম্পন্ন করেছেন। তিনি ২০০৯ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত একটি কোচিং সেন্টারে শিক্ষকতা করেন। ২০১১ সালে ব্যাংকিং সেক্টরে চাকরি শুরু করেন। প্রায় ৬ বছর চাকরির পর ২০১৭ সালে ব্যাংকের চাকরি ছেড়ে ব্যবসা শুরু করেন। তিনি প্রায় এক বছর শিশুদের ব্যবহার্য একটি আইটেম নিয়ে ব্যবসা করেন এবং পরে তিনি ওই ব্যবসা বিক্রি করে দেন। ২০১৮ সালে আগের ব্যবসালব্ধ অর্থ দিয়ে ইভ্যালি প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেন। ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে ইভ্যালির কার্যক্রম শুরু হয়। কোম্পানিতে তিনি সিইও এবং তার স্ত্রী চেয়ারম্যান পদে অধিষ্ঠিত হন।

এছাড়া বিভিন্ন সময়ে ইভ্যালির অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ থেকে লাইভে এসেও রাসেল তার ই-কমার্স প্রতিষ্ঠার নানা খুঁটিনাটি বিষয় বহুবার তুলে ধরেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর