সবজি আগের দরেই, বেড়েছে ডিম-মুরগি

ঢাকা, সোমবার   ২৫ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ১০ ১৪২৮,   ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সবজি আগের দরেই, বেড়েছে ডিম-মুরগি

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১০:২৯ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৫:৪৬ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

উৎপাদন কম হওয়ার অজুহাতে রাজধানীর বিভিন্ন কাঁচাবাজারে সপ্তাহের ব্যবধানে বেড়েছে ডিম ও মুরগির দাম। তবে সবজিসহ অন্যান্য পণ্যের দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

শুক্রবার সকালে রাজধানীর মিরপুর ও উত্তরার বিভিন্ন কাঁচাবাজার, মালিবাগ ও মগবাজার কাঁচাবাজার, সায়েদাবাদ ও কারওয়ান বাজার এলাকা ঘুরে এসব তথ্য জানা গেছে।

এসব বাজারে সরেজমিনে দেখা গেছে, বেশিরভাগ সবজিই আগের দরে বিক্রি হচ্ছে। বাজারে প্রতিকেজি (গোল) বেগুন ৮০ টাকা, লম্বা বেগুন ৫০ থেকে ৪০ টাকা, করলা ৬০ টাকা, ইন্ডিয়ান টমেটো ১০০ টাকা, সিম ১২০ টাকা, বরবটি ৬০ টাকা। চাল কুমড়া পিস ৪০ টাকা, প্রতি পিস লাউ আকারভেদে বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকায়, মিষ্টি কুমড়ার কেজি ৪০ টাকা, চিচিঙ্গা ৪০ টাকা, পটল ৪০ টাকা, ঢেঁড়স ৪০ টাকা, লতি ৮০ টাকা ও কাকরোল ৮০ থেকে ৬০ টাকা।

এছাড়া আলু বিক্রি হচ্ছে ২০ টাকা কেজি। প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৪৫ টাকায়। বাজারে কাঁচা মরিচ প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকায়। কাঁচা কলার হালি বিক্রি হচ্ছে ২৫ থেকে ৩০ টাকায়। পেঁপে প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকা। শসা বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ৬০ টাকায়। লেবুর হালি বিক্রি হচ্ছে ১৫ টাকায়।

শুকনা মরিচ প্রতি কেজি ১৫০ থেকে ২৫০ টাকা, রসুনের কেজি ৮০ থেকে ১৩০ টাকা, আদা বিক্রি হচ্ছে ১০০ টাকা, হলুদ ১৬০ টাকা থেকে ২২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ইন্ডিয়ান ডাল কেজিপ্রতি বিক্রি হচ্ছে ৯০ টাকায়। দেশি ডাল প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ১১০ টাকায়।

বাজারে কেজিপ্রতি চিনি বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকায়। এছাড়া প্যাকেট চিনি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৮৫ টাকায়। বাজারে গতসপ্তাহের দামে বিক্রি হচ্ছে খুচরা আটার। প্রতি কেজি আটা বিক্রি হচ্ছে ৩৩ থেকে ৩৫ টাকায়।  

এদিকে দামে বেড়েছে ডিমের। লাল ডিমের ডজন বিক্রি হচ্ছে ১১৫ টাকায়। হাঁসের ডিমের ডজন বিক্রি হচ্ছে ১৬৫ টাকা। দেশি মুরগির ডিম বিক্রি হচ্ছে ১৮০ টাকা। সোনালী (কক) মুরগির ডিমের ডজন বিক্রি হচ্ছে ১৫০ টাকায়।  

উত্তরা আজমপুর কাঁচাবাজারের বিক্রেতা আবদুর রহিম ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, বাজারে অন্যান্য পণ্যের দাম বেশি থাকায় ডিমের চাহিদা বেড়েছে। চাহিদা অনুযায়ী ডিমের উৎপাদন ও সরবরাহ না থাকায় বেড়েছে দামও।

সোনালি (কক) মুরগির দাম বেড়ে কেজিপ্রতি বিক্রি হচ্ছে ২৮০ টাকায়। বাজারে ব্রয়লার মুরগি কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৫০ টাকা। লেয়ার মুরগি প্রতি কেজি ২৪০ টাকা।  

মালিবাগ বাজারে মুরগি বিক্রেতা সাব্বির মিয়া বলেন, খামারিদের উৎপাদন কম হওয়ায় বেশি দাম দিয়ে পণ্য কিনতে হচ্ছে। খামারিদের সিন্ডিকেটের কারণে বেড়েছে মুরগির দাম।  

তিনি আরো বলেন, চাহিদা অনুযায়ী বাজারে মুরগির সরবরাহ কম। গতবছর ঠিক শীতের আগে আগে বাজারে বেড়েছিল মুরগির দাম। ঠিক একইভাবে এবছরও দাম বেড়েছে। মুরগির দাম আরো বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর