ঈদের পর কমেছে মাছ-মুরগির দাম 

ঢাকা, শনিবার   ২৪ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১০ ১৪২৭,   ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ঈদের পর কমেছে মাছ-মুরগির দাম 

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৫২ ৪ আগস্ট ২০২০  

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

কোরবানি ঈদের পর দাম কমেছে মাছ ও মুরগির। তবে দাম বেড়েছে সবজির। বন্যা ও বিভিন্ন মহাসড়কে যানজট থাকায় সবজির সরবরাহ কম।

ঈদের আগে মুরগির বাড়তি দাম থাকলেও বাজারভেদে বর্তমানে কেজিতে ২০ থেকে ৩০ টাকা কমেছে। সেই সঙ্গে দাম কমেছে মাছেরও। সবচেয়ে বেশি দাম কমেছে ইলিশ মাছের।

মঙ্গলবার রাজধানীর উত্তরা ৬ নম্বর কাঁচা বাজার, মহাখালি, মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেট ঘুরে দেখা যায় প্রতিকেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১২৫ থেকে ১৩৫ টাকায়। লেয়ার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ২শ’ থেকে ২১০ টাকা, সাদা লেয়ার ১৭০ থেকে ১৮০ টাকায়। আর কেজিতে ২০ থেকে ৩০ টাকা কমে প্রতিকেজি সোনালি মুরগি বিক্রি হচ্ছে ২৫০ থেকে ২৬০ টাকায়। তবে সরবরাহ কমে যাওয়ায় আগের দামেই বিক্রি হচ্ছে দেশি মুরগি। এখন বিক্রি হচ্ছে ৬০০ কেজিদরে। ডিম এক ডজন বিক্রি হচ্ছে ১১০টাকায়। দেশি মুরগির ডিম এক ডজন ১৭০টাকা।

এদিকে, ক্রেতাদের স্বস্তি দিচ্ছে মাছের বাজার। প্রতিকেজি কাঁচকি মাছ বিক্রি হচ্ছে ৩শ’ টাকা, মলা মাছ এক কেজি ৩শ’ থেকে ৩৫০ টাকা, প্রতিকেজি ছোটপুঁটি মাছ বিক্রি হচ্ছে ৩শ’ থেকে ৪শ’ টাকা, দেশি টেংরা ৩৫০ থেকে ৫শ’ টাকা, শিং (আকারভেদে) বিক্রি হচ্ছে ২৫০ থেকে ৪শ’ টাকা, পাবদা ২৮০ থেকে ৪শ’ টাকা, দেশি চিংড়ি (ছোট) ৩শ’ থেকে ৪শ’ টাকা, রুই (আকারভেদে) ১৮০ থেকে ৩শ’ টাকা, মৃগেল ১৭০ থেকে ২৮০ টাকা, পাঙাস ১শ’ থেকে ১৬০ টাকা, তেলাপিয়া ১শ’ থেকে ১৫০ টাকা, কাতল ১৮০ থেকে ৩শ’ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

প্রতিকেজি ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৮শ’ থেকে ৯শ’ টাকা। অপরদিকে ছোট ইলিশ আকারভেদে বিক্রি হচ্ছে ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকায়।

অন্যদিকে, ঈদের পরে বিভিন্ন সবজির দাম বেড়েছে। কেজিতে ৪০ টাকা বেড়ে এখন করলা ও উস্তা বিক্রি হচ্ছে ১১০ থেকে ১২০ টাকায়, লম্বা বেগুন ১০০ থেকে ১২০ টাকা, গোল বেগুন ৮০ থেকে ১শ’ টাকা কেজিদরে।

এক কেজি গাজর ৯০ থেকে ১শ’ টাকা, প্রতিকেজি ঝিঙা-চিচিঙা-ধন্দুল ৫০ থেকে ৭০ টাকা, কচুরলতি ৬০ থেকে ৭০ টাকা, টমেটো বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা, কাকরোল ৭০ থেকে ৮০ টাকা, বরবটি বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৭০ টাকা, কচুরছড়া ৬০ থেকে ৭০ টাকা, ঢেঁড়শ বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা, পেঁপে ৪০ থেকে ৫০ টাকা কেজিদরে বিক্রি করতে দেখা গেছে। অপরিবর্তিত আছে আলু, মিষ্টি কুমড়া, ধনিয়াপাতা, পুদিনাপাতার দাম। কেজিতে ২০ টাকা বেড়ে এখন কাঁচামরিচ প্রতিকেজি (দেশি) ২০০ টাকা, আমদানি ১৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

স্থিতিশীল রয়েছে আদা, রসুন ও পেঁয়াজের দাম। এসব বাজারে প্রতিকেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে (মানভেদে) ৪০ থেকে ৪৫ টাকা, প্রতিকেজি রসুন বিক্রি হচ্ছে ১শ’ থেকে ১২০ টাকা কেজিদরে, প্রতিকেজি আদা বিক্রি হচ্ছে (মানভেদে) ১২০ থেকে ১৩০ টাকা কেজিদরে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসএস/এমআরকে