Daily Bangladesh :: ডেইলি বাংলাদেশ

ঢাকা, রোববার   ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ১১ ১৪২৮,   ১৭ সফর ১৪৪৩

নিউজ আওয়ার এক্সট্রা এটিএন নিউজ ২১৩০ ঘটিকা ১৯ জুলাই ২০২১_

2021-07-19 21:30:00

এম এ মান্নানঃ

করোনার প্রথম ধাপ মোকাবেলায় আমাদের মৃত্যু ও সংক্রমণ কমে যাওয়ায় একটু হলেও ভালো অবস্থানে ছিলাম কিন্তু এই দ্বিতীয় ঢেউয়ের কারণে কিছুটা হলেও আমরা একটু থমকে গিয়েছি। দেশবাসী যদি সরকারের সাথে থাকে তাহলে এই ভাইরাসটি মোকাবেলা করার জন্য আমরা খুবই ভালো অবস্থানে যেতে পারবো। এখন আমাদের একজন শক্ত লিডার তৈরি হয়ে আছেন এবং তিনি আমাদেরকে সব সময় সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। আমরা সেই মোতাবেক কাজ করছি বলেই সব সামাল দিতে পারছি। এখনো কিছু মানুষ আছেন তারা বলে বেড়াচ্ছে যে সব গেলো সব গেলো, কেননা কেউ কেউ এটা বলে থাকেন কারণ তাদের একটাই কাজ গুজব ছড়ানো। যেহেতু রাজনীতি আছে এবং গণতন্ত্র আছে, তাই কেউ বলে থাকেন যে সব গেলো এরকম বলে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। এই ব্যাপারগুলোকে আমরা রাজনৈতিকভাবেই মোকাবেলা করতে পারবো। অন্যদিকে দেশের অর্থনীতির অবস্থা নিয়ে চিন্তা করার কোনো কারণ নেই কেননা আমাদের সেই সক্ষমতা আছে কারণ অর্থনৈতিকভাবে আমরা খুবই শক্তিশালী।

 

ফরহাদ হোসেনঃ

ঈদের পরের বিধি-নিষেধ ২৩শে জুলাই থেকে ৫ই আগস্ট পর্যন্ত পরিস্থিতি বিবেচনা করেই করা হয়েছে। এই বিধিনিষেধ দেওয়ার কারণ কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতির বাস্তবতাকে বিচার-বিশ্লেষণ করেই আমাদের নিতে হয়েছে। আমরা যদি ভ্যাকসিনের ব্যবস্থা করতে পারি এই বছরের শেষ নাগাদ তাহলে আমরা এই ভাইরাস থেকে পরিত্রাণ পেতে সক্ষম হবো। আমরা হয়তো চলাফেরার বিধিনিষেধ শিথিল করেছি বটে কিন্তু স্বাস্থ্যবিধি সারা বিশ্বের কোথাও শিথিল হয়নি। তাই ভ্যাকসিন নেওয়ার পরেও আমাদেরকে স্বাস্থ্যবিধি অবশ্যই মেনে চলতে হবে।

ফারুক হাসানঃ

আমরা পরিকল্পনা করে ডাব্লিওএইচও এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সবার প্রটোকল নিয়ে এমনকি বিজিএমইএ নিজেই একটা প্রটোকল করেছিল স্বাস্থ্যবিধির ব্যাপারে, সেটাকে ব্যবস্থাপনা করেই আমরা কারখানাগুলোকে চালু রেখেছিলাম। এটায় আমরা ভালোই ফলাফল পেয়েছি। আর আমাদের সংক্রমণের পরিমাণ কম হওয়ার কথা কারণ কারখানার আশেপাশেই শ্রমিকরা বেশি থাকে প্রায় ৯১% এর বেশি। সেই কারণেই সাহস করেই আমরা সরকারের সিদ্ধান্ত মোতাবেক কারখানাগুলো চালু রেখেছি। গতকালকের দিনটি আমাদের জন্য একটি ঐতিহাসিক দিন ছিল, কারণ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, স্বাস্থ্যমন্ত্রী, এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমাদের কারখানার কর্মীদেরকে ফ্রন্টলাইনার হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে। আমাদের কর্মীদের ডাটাবেজ আছে এবং সেগুলো একসাথে করে তাদেরকে ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থা নিবো। আমরা আমাদের কারখানাতে মাস্ক তৈরি করে থাকি এবং মাস্কটিকে নতুন একটা উপাদান হিসেবে বিদেশেও রপ্তানি করছি।

 

অধ্যাপক ডা. শারফুদ্দিন আহমেদঃ

বাংলাদেশের মানুষ ৫টা ভ্যাকসিন দেখতে পাচ্ছে আর পৃথিবীর অনেক দেশের মানুষ এখনো কোন ভ্যাকসিনই দেখেনি। অর্থাৎ এটা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অবদান। অর্থাৎ ভ্যাকসিন নিয়ে আমরা যেই দুশ্চিন্তার মধ্যে ছিলাম সেখানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন যে সবাইকে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দিবেন এবং তিনি তা বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আরেকটা স্বপ্ন বাস্তবায়নের পথে আছে সেটা হলো ভ্যাকসিন বাংলাদেশে তৈরি হবে। যারা তৈরি করবেন তারা মধ্যেই  অনেক প্রতিষ্ঠানই আছে যেমন, ইডিসিএল, ইনসেপ্টা, এবং পপুলার হেলথকেয়ার। প্রয়োজন হলে বিদেশ থেকে কাঁচামাল এনে এদেশেই ভ্যাকসিন তৈরি করবো। তার জন্য তিন থেকে ছয় মাস সময় লাগবে। গত দেড় বছর যাবত বাংলাদেশের কোন মানুষই বিদেশে চিকিৎসা করতে যায়নি। কারণ এদেশে এখন চিকিৎসা ব্যবস্থা অনেক ভালো। সরকার কিছুদিন আগেই কিছু প্রণোদনা দিয়েছেন এবং গতবারে এক লাখ কোটি টাকার মতো প্রণোদনা দিয়েছিলেন। আসলে সরকার আমাদের জন্য কি করে সেটা আমরা সহজেই ভুলে যাই।

অধ্যাপক ড. মোঃ হেলালঃ

করোনার এই ঢেউয়ের কারণে এবার যদি সব বন্ধ থাকতো এবং সরকার যদি বলতো কেউ গ্রামে যাবেন না তারপরও তারা যেতো, এতে করে কি হতো? পরিবহন বন্ধ থাকবে এবং সংক্রমণ বেড়ে যেতো কিন্তু এবার সরকার এই কাজটি করেনি। এখন সবাইকে এক জায়গায় আটকে দেন। কেউ বাড়িতে যেতে পারবে না, ১৪ দিন এভাবে থাকতে হবে। এতে করে অনেকখানি নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে কিন্তু সেটা তো সম্ভব না। কারণ এই যে যারা আর্থসামাজিক দিক দিয়ে পিছিয়ে আছে, তাদেরকে আপনি সুযোগ-সুবিধা দিতে পারছেন না। তা বিভিন্ন কারণে পারছেন না এবং আপনি ধরে রাখতেও পারবেন না। এইযে আসা যাওয়া হয় দুইটাতেই কিন্তু প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি আসে বা যায়, বিশেষকরে এবার কোরবানির গরু আসার ব্যাপারে ভালোই সিদ্ধান্ত ছিলো এটা। আপনারা যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এক্ষেত্রে এটা সুন্দর সিদ্ধান্ত হয়েছে আপাতত কিছু সময়ের জন্য হলেও এটা দরকার ছিল।

শিরোনাম:

Bulletশাহজালাল বিমানবন্দরে আরটিপিসিআর ল্যাবে ট্রায়াল রান আজ শুরু। Bulletচট্টগ্রামের বন্দর এলাকার নিমতলা বস্তিতে আগুন, নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ৫টি ইউনিট। (সময় টিভি) Bulletদেশে করোনায় আরও ২৫ জনের মৃত্যু; শনাক্ত ৮১৮। ১৭,৮১৮টি নমুনা পরীক্ষায় শনাক্ত হার ৪.৫৯ Bulletশাহজালাল বিমানবন্দরে আরটিপিসিআর ল্যাব পুরোপুরি প্রস্তুত। রাতে একশ’ যাত্রী নিয়ে দেয়া হবে ট্রায়াল রান: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর BulletBRICS জোটে নতুন সদস্য হিসেবে যুক্ত হয়েছে বাংলাদেশ: অর্থ মন্ত্রণালয় Bulletনেত্রকোণার বাগড়া বাজারে ট্রাক-পিকআপ ভ্যানের সংঘর্ষে নিহত ৩ Bulletরংপুরের হারাগাছে শুক্রবার রাতে মাদকসেবীর ছুরিকাঘাতে আহত পুলিশের এএসআই পিয়ারুল ইসলাম হাসপাতালে মারা গেছেন। Bulletডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে আরও ১৮৯ জন হাসপাতালে ভর্তি, এর মধ্যে ১৬৪ জনই ঢাকার। Bulletকক্সবাজারে ৪ লাখ ৩০ হাজার ইয়াবাসহ ৫ জনকে আটক করেছে RAB। (চ্যানেল ২৪ টিভি) Bulletবাংলাদেশের সাফল্যের প্রশংসা জাতিসংঘ মহাসচিবের, শান্তিরক্ষা মিশনে এখনো শীর্ষে বাংলাদেশ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী Bulletটাঙ্গাইলের কালিহাতীতে বাস-ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যানের ত্রিমুখী সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ২ Bulletময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে ঢাকা থেকে জামালপুরগামী কমিউটার ট্রেনে ডাকাতি; দুইজন নিহত, আহত এক। Bulletবিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান অসুস্থ, রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি। Bulletগাজীপুরের টঙ্গীতে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষ, রেললাইন অবরোধ, সারাদেশের সঙ্গে ঢাকার রেল যোগাযোগ বন্ধ। Bulletদেশে করোনায় একদিনে আরও ২৪ জনের মৃত্যু, এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৭,৩৩৭ জন। ২৪,৮২০ জনের নমুনা পরীক্ষায় শনাক্ত ১,১৪৪। মোট আক্রান্ত ১৫ লাখ ৪৮ হাজার ৩২০ জন। শনাক্তের হার ৪.৬১ শতাংশ। Bulletশনিবার থেকে বিমানবন্দরে বিদেশগামী যাত্রীদের করোনা টেস্ট করা যাবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী। Bulletটেকনাফে ১০ কোটি টাকা সমমূল্যের ২ কেজি ক্রিস্টাল ম্যাথ আইস উদ্ধার, আটক ১। Bulletজাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ই-অরেঞ্জ গ্রাহকদের মানববন্ধনের পর র‌্যালির চেষ্টা, পুলিশের লাঠিচার্জ। Bulletশাহজালাল বিমানবন্দরে ২ কোটি টাকার স্বর্ণসহ এক যাত্রী আটক। Bulletদেশে করোনায় একদিনে আরও ৩৬ জনের মৃত্যু, এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৭,৩১৩ জন। ২৮,৭৩৬ জনের নমুনা পরীক্ষায় শনাক্ত ১,৩৭৬। মোট আক্রান্ত ১৫ লাখ ৪৭ হাজার ১৭৬ জন। শনাক্তের হার ৪.৭৯ শতাংশ।