তারা এখন ‘বৈধ’ স্বামী-স্ত্রী

ঢাকা, শুক্রবার   ০৭ অক্টোবর ২০২২,   ২২ আশ্বিন ১৪২৯,   ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

Beximco LPG Gas

তারা এখন ‘বৈধ’ স্বামী-স্ত্রী

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০১:৩১ ১৮ আগস্ট ২০২২  

আদালতে বিয়ে হয় তাদের

আদালতে বিয়ে হয় তাদের

সব বাধা-বিপত্তি পেরিয়ে অবশেষে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন মোহাম্মদ সাগর ও পূর্ণিমা (ছদ্মনাম)। বুধবার বিকেলে সাড়ে চার লাখ টাকা কাবিনে চট্টগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ আজিজ আহমেদ ভূঞার আদালতে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়।

পূর্ণিমার করা ধর্ষণ মামলায় কারাগারে ছিলেন সাগর। বুধবার বিয়ের পর স্ত্রীর জিম্মায় সাগরের জামিন মঞ্জুর করে আদালত। এর আগে, ৮ আগস্ট বিয়ে হওয়ায় কথা থাকলেও প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে সাগরের পরিবারের সদস্যরা আদালতে উপস্থিত হতে পারেননি। ফলে বিয়ের তারিখ পিছিয়ে দেয় আদালত।

বর মোহাম্মদ সাগর বরিশালের বাসিন্দা হলেও বর্তমানে পরিবার নিয়ে থাকেন নগরের বায়েজিদ বোস্তামী থানার কৃষ্ণ ছায়া আবাসিক এলাকায়। কনে পূর্ণিমা চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার বাসিন্দা।

জানা গেছে, এর আগেও হুজুর ডেকে বিয়ে হয়েছিল দুজনের। কিন্তু করা হয়নি কাবিননামা রেজিস্ট্রি। পরে তাদের ঘর আলোকিত করে আসে ফুটফুটে এক কন্যা সন্তান। যার বয়স এখন ১৬ মাস। বিয়ের পর শ্বশুরবাড়ি থেকে যৌতুক হিসেবে নানাকিছু নেন সাগর। কিন্তু কাবিননামা রেজিস্ট্রির চাপ দিতেই করে বসেন বিয়ে অস্বীকার। এ অবস্থায় উপায় না পেয়ে হাটহাজারী থানায় মামলা করেন পূর্ণিমা। সেই মামলায় ২০ জুলাই থেকে কারাগারে ছিলেন সাগর।

স্বজনরা জানান, চাকরিসূত্রে পরিচয় দুজনের। সেখান থেকে সু-সম্পর্ক। আর সেটিই একসময় গড়ায় প্রেমের সম্পর্কে। একপর্যায়ে পূর্ণিমাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন সাগর। পূর্ণিমাও সেই প্রস্তাবে সাড়া দেন। পরে সাগরের কথামতো ঢাকা, বরিশাল ও চট্টগ্রামের বিভিন্ন ভাড়া বাসায় স্বামী-স্ত্রী হিসেবে থাকেন তারা।

সর্বশেষ স্বামী-স্ত্রী হিসেবে ভাড়া বাসায় থাকছিলেন দুজন। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে কাবিননামা রেজিস্ট্রি না করায় চাপ দিলে একপর্যায়ে বিয়ে অস্বীকার করেন সাগর। পরে এ ঘটনায় চট্টগ্রাম নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এ মামলার আবেদন করেন পূর্ণিমা। পরে হাটহাজারী থানাকে মামলা নেয়ার নির্দেশ দেয় আদালত। সাগরকে প্রধান অভিযুক্ত করে তার বাবা ও ভাইসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলাটি করা হয়।

আদালতের পিপি শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী বলেন, বুধবার বিকেলে আদালতে তাদের বিয়ে হয়েছে। বিয়ের পর সাগরের জামিনের বিষয়ে শুনানি হয়। শুনানি শেষে জামিন মঞ্জুর করে আদালত।

বাদীপক্ষের আইনজীবী আনোয়ার শাহাদাত চৌধুরী নয়ন বলেন, সাড়ে চার লাখ টাকা কাবিনে আদালতে তাদের বিয়ে হয়েছে। বিয়ের পর স্ত্রীর জিম্মায় সাগরকে জামিন দেয় আদালত। আগামী ধার্য তারিখ পর্যন্ত জামিন মঞ্জুর করা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর

English HighlightsREAD MORE »