কলায় ভাগ্য বদল আলীর

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২,   ১৪ আশ্বিন ১৪২৯,   ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

Beximco LPG Gas

কলায় ভাগ্য বদল আলীর

কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১০:৩৩ ১৩ আগস্ট ২০২২  

আলাউদ্দিন মেম্বারের মার্কেটের কলার আড়ৎ। ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

আলাউদ্দিন মেম্বারের মার্কেটের কলার আড়ৎ। ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

আলী হোসেন আলী (৩৫)। ছোটবেলা থেকেই কলার ব্যবসা করেন তিনি। কোনো প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা না থাকলেও রপ্ত করছেন ব্যবসায়ীক জ্ঞান। আর এ কলা ব্যবসায়ই ভাগ্য বাদলেছে তার।

বর্তমানে কালীগঞ্জ উপজেলার মাওনা চৌরাস্তা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের পাশে আলাউদ্দিন মেম্বারের মার্কেটের কলার আড়তে ব্যবসা করছেন তিনি। শুধু আলী নয়,কলার ব্যবসা করে ওই আড়তের অনেকেই হয়েছে স্বাবলম্বী।  

জানা গেছে, উৎপাদন, স্বাদ ও সুগন্ধের দিক থেকে শ্রেষ্ঠ হওয়ায় কলাকে ফলের রানী বলা হয়। কলা অতি জনপ্রিয় একটি সুস্বাদু ও পুষ্টিকর ফল। এ ফলে প্রচুর পরিমাণে শর্করা, ভিটামিন এ বি সি এবং ক্যালসিয়াম, লৌহ ও পর্যাপ্ত খাদ্যশক্তি রয়েছে। অন্যান্য ফলের তুলনায় কলা দামে সস্তা এবং প্রায় সারা বছরই পাওয়া যায়। তাই সব মানুষ সহজেই কলা খেতে পারে।  

আলাউদ্দিন মেম্বারের মার্কেটের কলার আড়ৎ। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

কলা ব্যবসায়ী আলী হোসেন জানান, তার আড়তে সবরি কলা, কবরি কলা, চিনি চম্পা, ও গেনা সুন্দরী কলা বিক্রি করে থাকেন। তিনি ২৭ বছর ধরে এই কলা ব্যবসা করছেন।  

তিনি আরো জানান, ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার মল্লিকবাড়ি, কাসর ও পাবনা, মাগুরা থেকে কাঁচা কলা  কিনে নিয়ে আসেন। কোনো প্রকার রাসায়নিক ছাড়া কলা পাকানোর পর কলার কাঁদি এলাকার খুচরা ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি করেন। প্রতিপুন কলা (২০ হালি) ৩০০-৪০০ টাকা বিক্রি করেন। আর এই কলার ব্যবসা করে প্রতি মাসে ৪০-৫০ হাজার টাকা আয় করেন বলেও জানান তিনি।

খুচরা কলা ব্যবসায়ী সানাউল্লাহ জানান, ওই আড়ৎ থেকে বিভিন্ন ধরনের কলা কিনে কারওয়ান বাজারে ক্রেতাদের কাছে বিক্রি করে লাভবান তিনিও। তাছাড়া এ আড়ৎ থেকে কম দামে কলা কিনতে পাওয়া যায় বলেও জানান তিনি।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআরএস

English HighlightsREAD MORE »