৩ দিনেও সন্ধান মেলেনি ১৯ জেলের 

ঢাকা, শুক্রবার   ০৭ অক্টোবর ২০২২,   ২২ আশ্বিন ১৪২৯,   ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

Beximco LPG Gas

বঙ্গোপসাগরে ট্রলারডুবি

৩ দিনেও সন্ধান মেলেনি ১৯ জেলের 

পটুয়াখালী প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১০:৩০ ১২ আগস্ট ২০২২  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বৈরী আবহাওয়ায় বঙ্গোপসাগরে ট্রলারডুবির ঘটনা ঘটে। গত সোমবার রাত ৩টার দিকে পায়রা বন্দরের শেষ ফেয়ার বয়া এলাকায় এফবি আনোয়ার ও এফবি সুজন নামে দুটি মাছধরা ট্রলার ডুবে যায়। এ সময় দুই ট্রলার থেকে সিরাজুল ইসলাম ও সিদ্দিক প্যাদা নামে দুই জেলে নিখোঁজ হন।

পরদিন মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে ১৫ জেলেসহ এফবি নিশাত নামে একটি মাছ ধরার ট্রলার ডুবে যায়। এ সময় ৯ জেলে মো. ফরহাদ, সোহেল, ইয়াসিন, ইয়াকুব, আলকাছ, আমজাদ, শরীফ উদ্দিন, শরীফ ও জাফর নিখোঁজ হন। পৃথক ঘটনায় আরো সাত জেলে নিখোঁজ রয়েছেন। তিন দিন অতিবাহিত হলেও নিখোঁজ জেলেদের উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। ফলে পরিবারগুলোতে চলছে শোকের মাতম।

মহিপুর মৎস্য আড়ৎদার ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক রাজু আহম্মেদ রাজা মিয়া বলেন, নিখোঁজ জেলেদের এখনো কোনো সন্ধান পাইনি।

এদিকে পায়রা বন্দরকে স্থানীয় তিন নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অফিস। এছাড়া মাছ ধরার ট্রলারসমূহকে উপকূলের কাছাকাছি থেকে চলাচল করতে বলা হয়েছে। গত তিন ধরে উপকূলীয় এলাকায় থেমে থেমে হালকা থেকে মাঝারি ও ভারী বৃষ্টিপাতে ভোগান্তিতে পড়েছে খেটে খাওয়া মানুষ।

আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, আরো তিন দিন বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। সেই সঙ্গে দক্ষিণাঞ্চলের উপকূলে স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৪ ফুট উচ্চতায় জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হওয়ার শঙ্কা রয়েছে। এই সময়ে ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার বেগে দমকা হাওয়া ও বজ্রবৃষ্টি হতে পারে।

জেলে আলমগীর হোসেন বলেন, কেবল জালে ইলিশ ধরা পড়তে শুরু করেছিল। এ অবস্থায় আবহাওয়া খারাপ হয়ে গেছে। তাই ফিরে এসেছি। 

আরেক জেলে রুহুল মাঝি জানান, তাদের ট্রলারের ১৭ জন জেলে ছিল। ৪০ কিলোমিটার গভীরে মাছ ধরা অবস্থায় সাগর উত্তাল হয়ে ওঠে। তারা সমুদ্রে টিকতে না পেরে জাল গুছিয়ে নিরাপদে তীরে ফিরে এসেছেন।

কুয়াকাটা-আলীপুর মৎস্য আড়ৎদার সমবায় সমিতির সভাপতি মো. আনছার উদ্দিন মোল্লা বলেন, গভীর সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়ে বৈরী আবহাওয়ার কারণে জেলেরা তীরে ফিরে এসে নিরাপদ আশ্রয় নিয়েছে। বর্তমানে সমুদ্র প্রচণ্ড উত্তাল রয়েছে।

মহিপুর থানার ওসি খন্দকার আবুল খায়ের বলেন, ট্রলারডুবির ঘটনায় থানায় জিডি হয়েছে। বিষয়টি কোস্টগার্ডকে অবহিত করা হয়েছে। নিখোঁজ জেলেদের সন্ধানে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। তবে সাগর উত্তাল থাকায় উদ্ধার অভিযান ব্যাহত হচ্ছে।

কোস্টগার্ড দক্ষিণ জোনের স্টাফ অফিসার (অপারেশন) লে. কমান্ডার সৈয়দ তৈমুর পাশা বলেন, নিম্নচাপের প্রভাবে বঙ্গোপসাগর উত্তাল থাকায় ৮ আগস্ট থেকে ভোলা, কক্সবাজার, পটুয়াখালী জেলার ছয়টি মাছ ধরার ট্রলারডুবির ঘটনা ঘটে। এতে ১৯ জেলে নিখোঁজ হয়েছেন। নিখোঁজ জেলেদের উদ্ধারে অভিযান চলছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআরএস

English HighlightsREAD MORE »