তাজিয়া মিছিলে আতশবাজিসহ সব ধরনের অস্ত্র নিষিদ্ধ

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২,   ১৫ আশ্বিন ১৪২৯,   ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

Beximco LPG Gas

তাজিয়া মিছিলে আতশবাজিসহ সব ধরনের অস্ত্র নিষিদ্ধ

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২২:০২ ৮ আগস্ট ২০২২  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

মঙ্গলবার পবিত্র আশুরা উপলক্ষে নগরে তাজিয়া ও শোক মিছিলে আতশবাজি-পটকা না ফোটানোর পাশাপাশি সব ধরনের অস্ত্র বহনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি)। সোমবার বিকেলে এ তথ্য জানান সিএমপির এডিসি (জনসংযোগ) শাহাদাত হুসেন রাসেল।

তিনি বলেন, নগরের বিভিন্ন স্থান থেকে ৬টি মিছিল শহরের বিভিন্ন রুট প্রদক্ষিণ করবে। দিনের বেলায় তাজিয়া মিছিল সম্পন্ন করতে হবে। রাতের বেলায় তাজিয়া মিছিল কিংবা রাস্তায় কোনো ধরনের সমাবেশ করা যাবে না। তাজিয়া মিছিলে বহনকারী বাঁশ-ঝান্ডার দৈর্ঘ্য ১২ ফুটের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখতে হবে। মিছিল চলমান গাড়ি চলাচলে বৈদ্যুতিক-টেলিফোন বা অন্য কোনো তারে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হলে, তা নিরসনের জন্য ‘ভি’ আকৃতিকর আংটাযুক্ত বাঁশ সঙ্গে রাখতে হবে।

তিনি আরো বলেন, তাজিয়া মিছিলে পাইক দলভুক্ত ব্যক্তিরা দা, ছুরি, কাঁচি, বর্শা, বল্লম, তরবারি, লাঠি ইত্যাদি নিয়ে অংশগ্রহণ করেন, যা ক্ষেত্রবিশেষে অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির সৃষ্টি করে। এটা ধর্মপ্রাণ ও নগরবাসীর মনে আতঙ্ক, ভীতি সৃষ্টিসহ জননিরাপত্তার জন্য হুমকি। তাছাড়া মহররম মাসে পবিত্র আশুরা উপলক্ষে আতশবাজি ও পটকা ফোটানো হয়, যা ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। তাজিয়া মিছিলের শুরু থেকে শেষ সময় পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে।

এডিসি শাহাদাত হুসেন রাসেল বলেন, মিছিলের জন্য নির্দিষ্ট রুট অবশ্যই অনুসরণ করতে হবে। এক রুটের মিছিল অন্য রুটে যাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। রাস্তায় যান চলাচলের প্রতি দৃষ্টি রেখে মিছিল পরিচালনা এবং তাজিয়া মিছিল চলাকালে রাস্তায় যাতে কোনো যানজট সৃষ্টি না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। এছাড়াও দুটি মিছিল যাতে মুখোমুখি না হয় এবং এক মিছিলের রুটে অন্য মিছিল যেন না ঢোকে সে বিষয়ে লক্ষ্য রাখতে হবে। 

তিনি আরো বলেন, শোকমিছিল শুরু হওয়ার পরে পথিমধ্যে আশপাশের ছোট ছোট গলি থেকে কোনো ব্যক্তি বা ব্যক্তিবর্গ গ্রুপ আকারে বা পাইক হিসেবে যাতে প্রবেশ করতে না পারে, তার ব্যবস্থা করতে হবে। মিছিল চলাকালে নিরাপত্তার স্বার্থে কোনো প্রকার ব্যাগ, ব্যাগ সদৃশ্য বস্তু, টিফিন বক্স, প্রেসার কুকার, দাহ্য পদার্থ নিয়ে প্রবেশ এবং অবস্থান করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

এছাড়াও নামাজ ও আযানের সময় মাইক-লাউড স্পিকার না বাজানো। ফেসবুক, টুইটার বা অন্য কোনো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভ্রান্তিমূলক প্রচার-প্রচারণা না করা, মাদক পরিহার করা এবং আপত্তিকর কিছু মনে হলে তাৎক্ষণিক পুলিশকে অবহিত করার অনুরোধ জানান তিনি।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে

English HighlightsREAD MORE »