‘নামাজ পড়তে বলায়’ বেধড়ক মারধর, একদিন পর কিশোরের মৃত্যু
15-august

ঢাকা, মঙ্গলবার   ০৯ আগস্ট ২০২২,   ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯,   ১০ মুহররম ১৪৪৪

Beximco LPG Gas
15-august

‘নামাজ পড়তে বলায়’ বেধড়ক মারধর, একদিন পর কিশোরের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০১:৪৩ ২৫ জুন ২০২২  

ছবি: আজিজুল হক হৃদয়

ছবি: আজিজুল হক হৃদয়

নামাজ পড়ার আহবান করায় এলোপাতাড়ি মারধরের একদিন পর বৃহস্পতিবার রাতে আজিজুল হক হৃদয় (১৭) নামের এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার ইউসুফপুর ইউনিয়নের মুগসাইর গ্রামে।

আজিজুল হক হৃদয় ওই গ্রামের মো. লিটন মিয়ার পুত্র। সে মুগসাইর এগারগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র ছিল।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার (২২ জুন) দুপুরে উপজেলার পশ্চিম পোমকাড়া গ্রামের ইদ্রিস আলীকে (৩৫)  ‘নামাজ পড়তে আসো, একদিন তো মরতে হবে। তোমরা নামাজ না পড়ে গাঁজা নিয়ে ব্যস্ত থাকো’ বলায় রেগে যান ইদ্রিস। এক পর্যায়ে ইদ্রিস ও তার সাথে থাকা বন্ধুরা মিলে হৃদয়কে মাটিতে ফেলে এলোপাতাড়ি মারধর করে৷ এতে হৃদয়ের বুকে ও শরীরে আঘাতপ্রাপ্ত হয়। আহত অবস্থায় হৃদয়কে স্থানীয়রা বাড়ি পৌঁছে দেয়।

বুধবার মারধরের শিকার আজিজুল হক হৃদয় পরদিন বৃহস্পতিবার বিকেলে মারা যায়। অভিযুক্ত ইদ্রিস মাদক সেবন ও মাদক কারবারের সাথে জড়িত বলে জানা গেছে।

নিহতের চাচা ইসমাইল জানান, বুধবার যোহরের নামাজের সময় হৃদয় পার্শ্ববর্তী পশ্চিম পোমকাড়া গ্রামের আব্দুল মোনাফের ছেলে ইদ্রিসকে (৩৮) দেখতে পেয়ে নামাজ পড়তে দাওয়াত দেয়। এ সময় ইদ্রিস ক্ষিপ্ত হয়। হৃদয় ইদ্রিসকে লক্ষ্যে করে হাসিমুখে নামাজের কথা বলে। এরপর উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়। এ সময় ইদ্রিস একটি আঙুলে আঘাত পায়। এরপর ইদ্রিসের সহযোগী একই এলাকার দেবেন্দ্রনাথ দাসের ছেলে কৃষ্ণ কমল দাসসহ আরও অজ্ঞাত কয়েকজন ক্ষিপ্ত হয়ে হৃদয়কে এলোপাতাড়ি মারধর করে এবং পেটের মধ্যে লাথি মারে।

বুধবার মারধর ও পেটে লাথির মারার পর থেকে হৃদয় সবসময় বমি করতো। একসময় পেটে তীব্র ব্যথা ও বমি শুরু হলে হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

হৃদয়ের মা রিনা বেগম বলেন, নামাজ পড়তে বলায় ওরা আমার ছেলেকে মেরে ফেলেছে। মারার পরে আবার বাড়িতে এসে (মারধরে অভিযুক্তরা) আমাকে সাবধান করে দিয়ে বলেছে, আমি যেন আমার ছেলেকে শাসন করি। আমার ছেলে হত্যার বিচার চাই।

দেবিদ্বার থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কমল কৃষ্ণ ধর শুক্রবার সকালে জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী

English HighlightsREAD MORE »