চেহারায় মিল থাকায় বনে গেছেন ডাক্তার, রোগীও দেখতেন নিয়মিত
15-august

ঢাকা, মঙ্গলবার   ০৯ আগস্ট ২০২২,   ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯,   ১০ মুহররম ১৪৪৪

Beximco LPG Gas
15-august

চেহারায় মিল থাকায় বনে গেছেন ডাক্তার, রোগীও দেখতেন নিয়মিত

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:০০ ২৪ জুন ২০২২  

আটককৃত ভুয়া ডাক্তার

আটককৃত ভুয়া ডাক্তার

তার নাম জাফরুল হাসান। পেশায় ডিপ্লোমা চিকিৎসক। কিন্তু তার চেহারার সঙ্গে অনেক মিল ডা. মোহাম্মদ তামিমের। তাই জাফরুল নিজেকে ডা. মোহাম্মদ তামিম নাম ব্যবহার করেই হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার পৌর শহরের এম.কে ডায়াগনস্টিক অ্যান্ড ক্লিনিকে প্রাইভেট প্র্যাকটিস করে আসছেন জাফরুল।

বিষয়টি জানতে পেরে শুক্রবার দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালত তাকে আটক করে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের কাছে এই ঘটনা স্বীকার করলে তার বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়ের করার জন্য চুনারুঘাট থানায় হস্তান্তর করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রিফাত আনজুম প্রিয়া।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলার বাসিন্দা জাফরুল হাসান টাঙ্গাইলের প্রফেসর সোহরাব উদ্দিন আইএমটি অ্যান্ড ম্যাটস থেকে ডিপ্লোমা ডিগ্রি অর্জন করেন। কিন্তু চুনারুঘাটে এসে সে নিজেকে ডা. তামিম এবং বিএমডিসি রেজিস্ট্রেশন নাম্বার অ-৮৮০০২ ব্যবহার করে রোগী দেখে আসছিলেন। এ ব্যাপারে সিভিল সার্জন অফিসে একাধিক অভিযোগ পাওয়া যায়। বিষয়টি জানতে পেরে ভ্রাম্যমাণ আদালত সেখানে অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় হবিগঞ্জ সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. উমর ফারুক উপস্থিত ছিলেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রিফাত আনজুম প্রিয়া জানান, জাফরুল ইসলাম কোনোভাবে ডা. তামিমের কাগজপত্রের ফটোকপি সংগ্রহ করে। ডা. তামিম এর বাড়ি নওঁগা জেলায় এবং তিনি বিষয়টি জানতেন না। তবে ডা. তামিম ও জাফরুল ইসলামের চেহারায় মিল রয়েছে। ভ্রাম্যমাণ আদালত কোনো জরিমানা বা কারাদণ্ড না দিয়ে নিয়মিত মামলার জন্য চুনারুঘাট থানায় জাফরুলকে সোপর্দ করে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ

English HighlightsREAD MORE »