ভোটে হেরে রাস্তায় দেয়াল, অবরুদ্ধ ৫০ পরিবার

ঢাকা, শনিবার   ০১ অক্টোবর ২০২২,   ১৫ আশ্বিন ১৪২৯,   ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

Beximco LPG Gas

ভোটে হেরে রাস্তায় দেয়াল, অবরুদ্ধ ৫০ পরিবার

শরীয়তপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:৪৭ ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২  

রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া দুর্ভোগে এলাকাবাসী

রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া দুর্ভোগে এলাকাবাসী

ভোটে হেরে ৫০ পরিবারের চলাচলের পথ বন্ধ করে দিয়েছেন আমেনা বেগম নামে এক সংরক্ষিত মহিলা সদস্য প্রার্থী। ৪৭ বছর বয়সী আমেনা শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার ঘড়িষার ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের গোয়াল বাথান গ্রামের বাসিন্দা।

ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, ভোটে হেরে গোয়াল বাথান গ্রামে দেয়াল, টিন ও বাঁশ দিয়ে ৫০ পরিবারের চলাচলের পথ বন্ধ করে দেন পরাজিত সংরক্ষিত মহিলা সদস্য প্রার্থী আমেনা বেগম ও তার সমর্থকরা। এ ঘটনায় নড়িয়া থানায় একটি অভিযোগও হয়েছে।

জানা গেছে, ইউপি নির্বাচনে ৪, ৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ছয়জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এর মধ্যে ক্যামেরা প্রতীকে জয়ী হন ইসমতারা বেগম। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আমেনা বেগম মাইক প্রতীকে হেরে ক্ষুব্ধ হয়ে ৫০টি পরিবারের চলাচলের পথ বন্ধ করে দেন। এতে দৈনন্দিন কৃষিকাজসহ যাতায়াতে ভোগান্তিতে পড়েন এখানকার বাসিন্দারা। রাস্তা খুলে দেওয়ার জন্য বুধবার সকালে বিভিন্ন ব্যানারে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। গৃহবন্দি হয়ে পড়া এসব বাড়ির মানুষ যাতায়াতের পথ খুলে দিতে প্রশাসনের সহযোগিতা চেয়েছেন।

রাস্তা বন্ধ করে দেওয়ায় মানববন্ধন করে এলাকাবাসী

এ ব্যাপারে পরাজিত প্রার্থী আমেনা বেগম বলেন, আমি নির্বাচনে হেরেছি তাই পথ বন্ধ করেছি, বিষয়টি এমন নয়। ওই জমি পৈত্রিক ওেআমার ভাইয়েরা কিনেছেন। তাই আমাদের জমিতে প্রয়োজনে প্রাচীর দিয়েছি।

জসীম ঢালী, আব্দুর রহিম, মোতালেব ঢালী, মো. ফিরোজ হাওলাদার, হাজেরা বেগম, সাহিদা বেগমসহ অনেকে বলেন, পঞ্চাশ বছর ধরে এ রাস্তা দিয়ে যাতায়াত আমাদের অন্তত ৫০ পরিবারের। ধান, গম, সরিষাসহ বিভিন্ন ফসল এ পথ দিয়ে আনা-নেয়া হয়। কবর জিয়ারত করতে এ পথ দিয়েই যেতে হয়। কিন্তু আমেনা বেগম নির্বাচনে হেরে আমাদের পথ বন্ধ করে দিয়েছেন। আমরা যাতায়াতের পথ খুলে দিতে প্রশাসনের সহযোগিতা চাই।

তারা বলেন, সম্প্রতি এ এলাকায় এক লোক মারা যান। যেখানে যেতে মাত্র ৩০০ মিটার পথ। আমেনা রাস্তা পথ বন্ধ করে দেওয়ার কারণে ওই ব্যাক্তির জানাজা ও দাফন করতে পাঁচ কিলোমিটার ঘুরে যেতে হয়েছে।

এ ব্যাপারে ঘড়িষার ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আব্দুর রব খান বলেন, এলাকাবাসী নাকি আমেনা বেগমকে ভোট দেয়নি। তাই নির্বাচনে পরাজিত হয়ে আমেনা বেগম চলাচলের পথ বন্ধ করে দিয়েছেন। এলাকায় বসবাস করলে সবাই মিলেমিশে চলতে হয়। কারো সহযোগিতা ছাড়া কেউ চলতে পারে না। রাস্তা বন্ধ করা এটা একটি ভুল সিদ্ধান্ত। আমেনার ভাইয়েরা বিদেশে থাকেন, বিষয়টি জানার পর থেকে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা চলছে।

নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অবনি সংকর কর বলেন, ওই জমি আমেনা বেগমের পরিবারের। যেহেতু তাদের ব্যক্তিগত জমি, পথ খুলে দেওয়ার ব্যাপারটা তাদের। তবু সবার স্বার্থে আমিও বলেছি সবার সঙ্গে মিলে যেতে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর

English HighlightsREAD MORE »