শাশুড়ির মামলায় শ্বশুরের হয়ে সাক্ষ্য দিতে এসে অপহরণের শিকার জামাই

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৯ মে ২০২২,   ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯,   ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

শাশুড়ির মামলায় শ্বশুরের হয়ে সাক্ষ্য দিতে এসে অপহরণের শিকার জামাই

পাবনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২২:৩৯ ২৬ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ১৯:২৪ ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২

পাবনায় আদালত চত্বরে শাশুড়ির যৌতুক মামলায় শ্বশুরের পক্ষে সাক্ষ্য দিতে এসে জামাই অপহরণের শিকার ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

পাবনায় আদালত চত্বরে শাশুড়ির যৌতুক মামলায় শ্বশুরের পক্ষে সাক্ষ্য দিতে এসে জামাই অপহরণের শিকার ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

পাবনায় আদালত চত্বরে শাশুড়ির যৌতুক মামলায় শ্বশুরের পক্ষে সাক্ষ্য দিতে এসে জামাই অপহরণের শিকার হয়েছেন। এ সময় বহিরাগত দুর্বৃত্তদের বাধা দিতে গিয়ে ৩ আইনজীবী মারধরের শিকার হয়েছেন। 

পাবনার আইনজীবী সমিতির সাবেক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুল আহাদ বাবু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। মামলার বাদী ও আসামি পক্ষের বিরোধের জেরে বুধবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। 

কামরুজ্জামান নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে তার স্ত্রী যৌতুক মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় শ্বশুরের পক্ষে সাক্ষী দিতে আসেন জামাই মাসুদুজ্জামান। তাকে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার ঘণ্টা দুয়েক পর ছেড়ে দেয় বহিরাগতরা। 

পাবনার আইনজীবী সমিতির সাবেক সম্পাদক আব্দুল আহাদ বাবু জানান, পাবনা আদালতের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী অ্যাডভোকেট খায়রুল আলম দুলাল যৌতুক মামলার আসামি কামরুজ্জামান, তার জামাই ও সাক্ষী মাসুদুজ্জামানকে নিয়ে বুধবার আদালত প্রাঙ্গণে আসেন। কামরুজ্জামানের স্ত্রীর দায়ের করা যৌতুকের মামলায় চার্জ গঠনের শুনানিতে অংশ নেয়ার কথা ছিল তাদের।

পাবনায় আদালত চত্বরে শাশুড়ির যৌতুক মামলায় শ্বশুরের পক্ষে সাক্ষ্য দিতে এসে জামাই অপহরণের শিকার

তারা দুপুরে পাবনা বার সমিতির কাছে একটি হোটেলে খাচ্ছিলেন। তখন একদল বহিরাগত যুবক  জামাই মাসুদুজ্জামানকে ধরে নিয়ে গিয়ে প্রথমে শহরের তাড়াশ ভবনে ও পরে এলএমবি মার্কেটের একটি কক্ষে আটকে রাখে। ঘণ্টা দুয়েক পর তারা তাকে ছেড়ে দেয়। এরপর বহিরাগতরা আবারো আদালত প্রাঙ্গণে এসে মামলা ইস্যুতে কামরুজ্জামান ও তার আইনজীবীদের সঙ্গে বাক বিতণ্ডা শুরু করে। এ সময় কযেকজন আইনজীবী এগিয়ে আসেন। তখন বহিরাগত যুবকরা আদালত চত্বরের পাশে পাবনা পৌরসভা চত্বরে অ্যাডভোকেট রিজভী শাওন, অ্যাডভোকেট আশরাফুজ্জামান প্রিন্স ও অ্যাডভোকেট প্লাবনকে মারধর শুরু করে। এক পর্যায়ে আইনজীবীরা দৌড়ে পৌরসভা ভবনে আশ্রয় নেন। বহিরাগত যুবকেরা সেখানে গিয়েও তাদের মারপিট করে। 

আহত আইনজীবী রিজভী শাওন জানান, সিনিয়র আইনজীবী খায়রুল আলমের মামলার সাক্ষীকে অপহরণ হওয়ায় তারা ঘটনা শুনছিলেন। এ সময় জনি ও রাশেদ নামে দুই যুবকের নেতৃত্বে বহিরাগতরা তাদের মারপিট শুরু করে। তারা সাক্ষী মাসুদুজ্জামানকে অপহরণ করে ভয়ভীতি দেখিয়েছে। ঘণ্টা দুয়েক পরে পাঁচ হাজার টাকা কেড়ে নিয়ে তাকে ছেড়ে দেয়। আদালত চত্বরে এমন হামলায় তারা ক্ষুদ্ধ ও বিস্মিত বলে জানান। আইনজীবীরা ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিচার দাবি করেন। 

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। কিন্তু তারা যাওয়ার পর কাউকে পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অ্যাডভোকেট আবদুল আহাদ বাবু বলেন, বহিরাগতরা আইনজীবীদের ওপর হামলা ও আইনজীবীদের লাঞ্ছিত করা খুবই দুঃখজনক। আইনজীবীদের ওপর হামলা ও লাঞ্ছিতের ঘটনায় আইনজীবী সমিতি আইনী পদক্ষেপ নেবে।  

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে

English HighlightsREAD MORE »