‘প্রচন্ড শীত আর সহ্য হচ্ছে না’  

ঢাকা, রোববার   ২২ মে ২০২২,   ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯,   ২০ শাওয়াল ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

‘প্রচন্ড শীত আর সহ্য হচ্ছে না’  

আব্দুস সাত্তার, রাজশাহী ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৪২ ২১ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ১৯:৫৮ ২১ জানুয়ারি ২০২২

বৃহস্পতিবার, ঘড়ির কাঁটায় রাত ১২টা বাজতে এক মিনিট বাকি। রাজশাহীতে বুধবার থেকে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা বিরাজ করছে।

রাজশাহীতে শীতে কম আয়ের মানুষেরা বেশ নাজেহাল অবস্থায় পড়েছেন। এবার শীত বেশি পড়ায় নগরীর রেলওয়ে স্টেশনে ছিন্নমূল মানুষদের একটি গরম কাপড় কিংবা কম্বল পাওয়ার আকুতি করতে দেখা গেছে। 

ছলেমা বেওয়া বলেন, বাপুরে একটা কম্বল দিবা। আমার খুব ঠান্ডা লাগছে। এখন পর্যন্ত কোনো কম্বল পাইনি। শীতে পলেস্টার বস্তা দিয়ে শীত রক্ষা করতে পারছি না।
 
শুধু ছলেমা বেওয়ার এ আকুতি নয়, এ আকুতি আরো অনেকের। সত্তর বছরের ভানু শেখ বলেন, আমার ঠিকানা এই শহর। এই শহরেই থাকতে ভালোবাসি। মনে অনেক কষ্ট থাকলেও এই শহরটা রক্তে মিশে গেছে। প্রচন্ড ঠান্ডা লাগে। তবে কিছু করার নেই। ঠান্ডার বিপরীতে থেকেই মোকাবিলা করতে হবে। কেউ দিক বা না দিক একটা কম্বল। তাতে কোনো যায় আসে না। কোনো সরকারি বা বেসরকারি সংস্থা কম্বল দিতে আসলেই আমরা বঞ্চিতই থেকে যাই।

উন্নয়ন কর্মী মিজানুর রহমান মিজান বলেন, অসহায় মানুষেরা সবসময় অসহায় থাকে। তবে এসব অসহায়দের মধ্যে অনেকেই কম্বল পান এটাও সত্য। আবার অনেকেই কম্বল পাওয়ার যোগ্যরা পান না। এটাই বড় সংকটের কথা।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ বদলে গেছে। অনেক উন্নয়ন হচ্ছে। কিন্তু মানুষের মন পরিবর্তন হচ্ছে না। এটা খুবই অশনিসংকেত। সমাজের প্রকৃত অসহায় দুঃস্থরা কম্বল পাবে, কিন্তু অসহায় দুঃস্থরাই বঞ্চিত হয়। এটাই সত্য।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ/এমকে

English HighlightsREAD MORE »