রুপাসহ তিন বোনের দায়িত্ব নিলেন উপমন্ত্রী শামীম

ঢাকা, শুক্রবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২২,   ১৪ মাঘ ১৪২৮,   ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

রুপাসহ তিন বোনের দায়িত্ব নিলেন উপমন্ত্রী শামীম

শরীয়তপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:৪৮ ১৪ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ১৬:৩০ ১৪ জানুয়ারি ২০২২

রুপাসহ তাদের তিন বোনের পড়াশোনার দায়িত্ব নেন পানিসম্পদ উপমন্ত্রী ও শরীয়তপুর-২ আসনের এমপি একেএম এনামুল হক শামীম।  ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

রুপাসহ তাদের তিন বোনের পড়াশোনার দায়িত্ব নেন পানিসম্পদ উপমন্ত্রী ও শরীয়তপুর-২ আসনের এমপি একেএম এনামুল হক শামীম।  ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছোটবেলায় বাবা-মাকে হারান রুপা রানী দে। এরপর তাদের তিন বোনের দায়িত্ব পড়ে চাচা-ফুফুর ওপর। তাতেও ঘটে বিপত্তি। এক সময় সংসারে উপার্জনের একমাত্র অবলম্বন চাচাও অক্ষম হয়ে যান। সেই থেকে এক হাতে বই অন্য হাতে সংসারের হাল ধরেন ‘অদম্য’ রুপা। 

এই অদম্য রুপাকে নিয়ে গণমাধ্যমে একাধিক সংবাদ প্রকাশ হয়। এরপর রুপাসহ তাদের তিন বোনের পড়াশোনার দায়িত্ব নেন পানিসম্পদ উপমন্ত্রী ও শরীয়তপুর-২ আসনের এমপি এ কে এম এনামুল হক শামীম। 

বৃহস্পতিবার দুপুরে পানিসম্পদ উপমন্ত্রী শামীম রুপার ভাড়া বাড়িতে গিয়ে মায়ের নামে ফাউন্ডেশন ‘বেগম আশ্রাফুন্নেছা ফাউন্ডেশন’ এর পক্ষ থেকে নগদ ২৫ হাজার টাকা, পাঁচটি শীতবস্ত্র কম্বল রুপার হাতে তুলে দেন।

আরো পড়ুন >>> ইজিবাইকের রং পাল্টিয়েও হলো না রক্ষা,  ফুটেজ দেখে ৩ চোর গ্রেফতার

পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম বলেন, রুপার বাবা পরেশ চন্দ্র দে আমার কাছের লোক ছিলেন। বেগম আশ্রাফুন্নেছা ফাউন্ডেশন এর পক্ষ থেকে নগদ ২৫ হাজার টাকা ও পাঁচটি শীতবস্ত্র কম্বল রুপার পরিবারকে দিয়েছি। সেইসঙ্গে ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে রুপার তিন বোনের পড়াশোনার দায়িত্ব নিয়েছি।

রুপাসহ তাদের তিন বোনের পড়াশোনার দায়িত্ব নেন পানিসম্পদ উপমন্ত্রী ও শরীয়তপুর-২ আসনের এমপি একেএম এনামুল হক শামীম। 

তিনি বলেন, রুপাদের জমি অন্যায়ভাবে দখল করা হয়েছে। তাদের সঙ্গে কথা বলব। তাদের জমি যেন তারা দ্রুত ফিরে পায়, সেটার প্রক্রিয়া শুরু করেছি। ওরা গৃহহীন থাকবে না। বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা ভূমিহীন ও গৃহহীনদের ঘর উপহার দিচ্ছেন। তাই রুপাদের ঘরের ব্যবস্থা করে দেব। এই পরিবারকে সহযোগিতা করা আমার দায়িত্ব।

আরো পড়ুন >>> প্রেম করল ছেলে, জীবন দিয়ে মাশুল দিলেন বাবা

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার ডিঙ্গামানিক গ্রামের মৃত পরেশ চন্দ্র দে ও মৃত ঝর্ণা রানী দে’র মেয়ে রুপা রানী দে। নড়িয়া সরকারি কলেজের অনার্স তৃতীয়বর্ষের ছাত্রী তিনি। অভাব-অনটনের মধ্যেও তিনি এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করে পাস করেন।

রুপা রানী দে বলেন, আজ আমি খুব আনন্দিত। কারণ সাংবাদিকদের সংবাদ প্রকাশের কারণে পানিসম্পদ উপমন্ত্রী আমার পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তিনি তিন বোনের পড়াশোনার দায়িত্ব নিয়েছেন। সহযোগিতা করেছেন। আমাদের বেদখল জমি উদ্ধারের দায়িত্ব নিয়েছেন। এটা যে কত বড় পাওয়া বুঝাতে পারব না।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে/এমএস

English HighlightsREAD MORE »