কক্সবাজারে হত্যা মামলায় একজনের ফাঁসি, ৪ জনের যাবজ্জীবন 

ঢাকা, বুধবার   ১৯ জানুয়ারি ২০২২,   ৫ মাঘ ১৪২৮,   ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

কক্সবাজারে হত্যা মামলায় একজনের ফাঁসি, ৪ জনের যাবজ্জীবন 

কক্সবাজার প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৩৯ ১৩ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ১৮:৪৫ ১৩ জানুয়ারি ২০২২

জেলা জজ আদালত- ফাইল ফটো

জেলা জজ আদালত- ফাইল ফটো

কক্সবাজারে হত্যা মামলায় একজনের ফাঁসি ও ৪ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া একই মামলার অপর ৩ জন আসামিকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আবদুল্লাহ আল মামুন এ রায় প্রদান করেন।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের অ্যাডিশনাল পিপি অ্যাডভোকেট মোজাফফর আহমদ হেলালী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, ২০০২ সালের ২৯ জুলাই রাত আড়াইটার দিকে কক্সবাজার সদর উপজেলার লারপাড়া কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালের দক্ষিণ পাশে ক্যাফে হায়দার হোটেলের কাছে শাহাবুদ্দিন নামে এক ব্যক্তির একটি গাড়ি আসামিরা নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে তার বড় ভাই আক্তার উদ্দিন তাতে বাধা দেন। এতে উভয়পক্ষের মধ্যে তুমুল বাকবিতণ্ডা হয়। পরে এক ঘণ্টা পর রাত সাড়ে ৩ টার দিকে আসামিরা আক্তার উদ্দিন (৩৫) কে গুলি করে হত্যা করে। এ ঘটনায় উখিয়ার রত্নাপালংয়ের জমির উদ্দিনের ছেলে আব্বাস উদ্দিন বাদী হয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। 

আরো পড়ুন >>> প্রথমবার ৪ চাকার গাড়ি দেখলো খালিয়াজুরীবাসী
 
অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বেঞ্চ সহকারী দেলোয়ার হোসাইন জানান, ২০০৩ সালের ৩ জুন মামলাটির চার্জ গঠন করা হয়। মামলার চার্জশিটভুক্ত ২০ জন সাক্ষীর মধ্যে আইও, চিকিৎসকসহ ১৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ, জেরা, আসামিদের আত্মপক্ষ সমর্থন, যুক্তিতর্কসহ সকল বিচারিক কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়।  

বৃহস্পতিবার কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আবদুল্লাহ আল মামুন মামলার ৮ জন আাসমির মধ্যে ১ জনকে ফাঁসি ও ৪ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদান করে রায় ঘোষণা করেন। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ৫ জনের প্রত্যেককে ১ লাখ টাকা অর্থদণ্ড এবং অনাদায়ে অতিরিক্ত ১ বছর বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন। 

আরো পড়ুন >>> চাঁদপুরে লঞ্চের ধাক্কায় পন্টুন লণ্ডভণ্ড

এছাড়া অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় ৩ জনকে বেকসুর খালাস প্রদান করা হয়। ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি আবদুল খালেক ও যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত আসামি আমির হামজা জেল হাজতে রয়েছেন। রায় ঘোষণার সময় তারা আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন।

অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বেঞ্চ সহকারী দেলোয়ার হোসাইন আরো জানান, মামলায় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি  আবদুল খালেক (৩৫) কক্সবাজার সদর উপজেলার চান্দের পাড়ার কালু মাঝির ছেলে। 

যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রাপ্ত আসামিরা হলেন মোহাম্মদ কাজল, আমির হামজা, সলিম উল্লাহ ও আবদুল গাফফার।

খালাস পেয়েছেন আবদুল জলিল, আশফাকুর রহমান মিল্কী, ওবায়দুল হক। রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট মোজাফফর আহমদ হেলালী।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে

English HighlightsREAD MORE »