বড়পুকুরিয়া থেকে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ যাচ্ছে ১৬ জেলায়

ঢাকা, শুক্রবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২২,   ১৪ মাঘ ১৪২৮,   ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

বড়পুকুরিয়া থেকে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ যাচ্ছে ১৬ জেলায়

দিনাজপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:১০ ১৩ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ১৮:২৩ ১৩ জানুয়ারি ২০২২

বড়পুকুরিয়া ৫২৫ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র

বড়পুকুরিয়া ৫২৫ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র

দেশের প্রত্যন্ত ১৬টি জেলায় কৃষি ও শিল্প খাতে উৎপাদন বাড়াতে দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া ৫২৫ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হচ্ছে, যা বড় ভূমিকা রাখছে দেশের অর্থনীতিতে। প্রতিনিয়ত সংযোগ ও গ্রাহক সংখ্যা বাড়লেও বিদ্যুৎ সরবরাহে কোনো ঘাটতি নেই।

দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলায় অবস্থিত বড়পুকুরিয়া ৫২৫ মেগাওয়াট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র দেশের উত্তরাঞ্চলের একমাত্র কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র। নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ বজায় রাখতে এখানে সৃষ্টি করা হয়েছে কয়েকশ কর্মসংস্থান। যারা এখানে কাজের সুযোগ পাচ্ছেন তারাও দেশের উত্তরাঞ্চলের প্রত্যন্ত এলাকার বাসিন্দা।

আরো পড়ুন>> প্রিয়তমার মান ভাঙাতে শহরজুড়ে ‘স্যরি’ ব্যানার

১৯৯৪ সালে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি উদ্বোধনের পর থেকেই খনির উৎপাদিত কয়লা দিয়ে দেশের প্রথম ২৭৫ মেগাওয়াট ধারণক্ষমতার কয়লাভিত্তিক ইউনিটের তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের সিদ্ধান্ত হয়। ২০০৩ সালের ২৩ এপ্রিল মাসে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রটি স্থাপিত হয়। ২০০৫ সালে নির্মাণ কাজ শেষ হয়। কয়লার জোগান থাকায় স্বল্প সময়ের মধ্যে বিদ্যুৎ উৎপাদনের ইউনিট বৃদ্ধি করা হয়। এরপর থেকে উত্তরাঞ্চলের ১৬টি জেলায় বিদ্যুতের চাহিদার একটি বড় অংশ এখান থেকে পূরণ করা হচ্ছে।

২০১৪ সালে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের তৃতীয় ইউনিট নির্মাণ করা হয়। ২০১৭ সালের ২৬ ডিসেম্বর তৃতীয় ইউনিটটি পরীক্ষামূলক চালু হয়। এখন তৃতীয় ইউনিট থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ চলছে। ২৮২ একর জমির উপর নির্মিত তিন ইউনিটের তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে প্রতি বছর প্রায় ৮ লাখ ৪০ হাজার টন কয়লা ব্যবহার হচ্ছে। এখন ৩টি ইউনিট থেকে ৫২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদিত হচ্ছে। কয়লার সংকটের মধ্যেও বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন অব্যাহত আছে। উৎপাদন কার্যক্রমে ভাটা পড়েনি করোনাভাইরাস মহামারি চলাকালেও।

আরো পড়ুন>> বিস্ময়বালক সাদ: ৭ বছরেই রপ্ত করেছে জটিল সব গণিত, অনর্গল বলে ইংরেজি

বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রধান প্রকৌশলী এস এম ওয়াজেদ আলী সরদার জানান, ২০২০ সালে যোগদান করার পর বড়পুকুরিয়া কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ২টি ইউনিট ওভারহোলিং-এর মাধ্যমে ঠিক করে চলতি বছর বিদ্যুৎ উৎপাদনে সচল রাখা হয়েছে। এতে উত্তরাঞ্চলের ১৬টি জেলায় নিরবিচ্ছন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ করা সম্ভব হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিদ্যুতের উৎপাদন বাড়াতে স্বাধীনতার পর ব্যাপক উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রটির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। সারাদেশে বিদ্যুতের উৎপাদন বাড়াতে নানা প্রকল্প গ্রহণ করেছে সরকার। এ কারণেই দেশ আজ বিদ্যুৎ উৎপাদন ও সরবরাহে অনেক এগিয়েছে। বড়পুকুরিয়া থেকে উৎপাদিত বিদ্যুৎ দেশের উত্তরাঞ্চলের ১৬টি জেলায় সরবরাহ করা হচ্ছে। বিদ্যুতের ঘাটতি ঠেকাতে ৩টি ইউনিটের মাধ্যমে ৫২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হচ্ছে।

আরো পড়ুন>> পছন্দের রোগীর সঙ্গে যৌনতায় লিপ্ত হতেন বাঁধন

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর/এমএস/জেডআর

English HighlightsREAD MORE »