নোয়াখালীতে ওএমএসের চাল-আটা কালোবাজারে, একজনের অর্থদণ্ড

ঢাকা, সোমবার   ১৭ জানুয়ারি ২০২২,   ৩ মাঘ ১৪২৮,   ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

নোয়াখালীতে ওএমএসের চাল-আটা কালোবাজারে, একজনের অর্থদণ্ড

নোয়াখালী প্রতিনিধি  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:০৯ ৮ ডিসেম্বর ২০২১  

নোয়াখালী পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডে অভিযান চালিয়ে নিজাম উদ্দিন নামে একজনকে আটক করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত

নোয়াখালী পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডে অভিযান চালিয়ে নিজাম উদ্দিন নামে একজনকে আটক করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত

সরকারিভাবে নিন্মআয়ের মানুষের সহায়তা প্রদানের জন্য বরাদ্দকৃত ওএমএস চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগে নোয়াখালী পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডে অভিযান চালিয়ে নিজাম উদ্দিন নামে একজনকে আটক করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এ সময় ঐ স্থান থেকে ১৭৯ বস্তা চাল, ১৮ বস্তা আটা ও ৩২ হাজার ৩৯০ টাকা জব্দ করা হয়। পরে আটককৃত ব্যক্তিতে ১ লাখ টাকা অর্থদণ্ড করা হয়।

বুধবার বিকেল ৩টার দিকে উত্তর সোনাপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড এলাকার এফএম থাই অ্যান্ড গ্লাস হাউজ থেকে মালামালগুলো জব্দ করা হয়। 

ওএমএস ডিলার একেএম সালা উদ্দিন রানা সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান একেএম সামছুদ্দিন জেহানের ছোট ভাই। আটককৃত নিজাম উদ্দিন ডিলার একেএম সালা উদ্দিন রানার প্রতিনিধি।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, উত্তর সোনাপুরে ওএমএস চালের ডিলার সরকারি নিয়ম অনুসরণ না করে বিভিন্ন ব্যক্তির কাছে ৫ কেজি করে চাল বিক্রির পরিবর্তে ১০, ২০ এবং ৩০ কেজি করে চাল বিক্রি করছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাফিজুল হকের নেতৃত্বে অভিযান চালায় ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এ সময় ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিভিন্ন ব্যক্তির কাছে বস্তা (প্রতি বস্তায় ৩০ কেজি) হিসেবে চাল বিক্রি করছে এমন প্রমাণ পাওয়া যায়। ঐ সময় ডিলারের ঘর থেকে ১৭৯ বস্তায় ৫ হাজার ৩৭০ কেজি চাল, ১৮ বস্তায় ৯০০ কেজি আটা ও ৩২ হাজার ৩৯০টাকা জব্দ এবং ডিলার প্রতিনিধি নিজাম উদ্দিনকে আটক করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাফিজুল হক জানান, অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে আটককৃত ব্যক্তিতে ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জরিমানার অর্থ আদায়ের পর আগামীতে এমন কাজ করবে না মর্মে অঙ্গীকারনামা নিয়ে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ

English HighlightsREAD MORE »