অর্থের কাছে হেরে গেলেন বাবা, চলে গেল শিশু খাদিজাও   

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২২,   ৫ মাঘ ১৪২৮,   ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

অর্থের কাছে হেরে গেলেন বাবা, চলে গেল শিশু খাদিজাও   

হাতীবান্ধা (লালমনিরহাট) প্রতিনিধি  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:২৯ ৫ ডিসেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৯:০৩ ৫ ডিসেম্বর ২০২১

শিশু খাদিজা ও তার বাবা ফেরদৌস আলী (ছবি: সংগৃহীত)

শিশু খাদিজা ও তার বাবা ফেরদৌস আলী (ছবি: সংগৃহীত)

৭ বছর বয়সী শিশু খাদিজা খাতুন। লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার দক্ষিণ গড্ডিমারী গ্রামের ভ্যান চালক ফেরদৌস আলীর মেয়ে। গত ১৪ নভেম্বর নিজ বাড়িতে আগুনে তার শরীরের ৭০ ভাগ পুড়ে যায়। দীর্ঘ ২০ দিন মৃত্যু যন্ত্রণায় ছটপট করে গতকাল শনিবার না ফেরার দেশে পাড়ি জমান খাদিজা। 

জানা গেছে, আগুনে পুড়ে যাওয়ার পর তাকে উদ্ধার করে হাতীবান্ধা হাসপাতালে নিয়ে যান স্থানীরা। পরে হাসপাতালের চিকিৎসকরা তাকে দ্রুত রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলেন। কিন্তু টাকার অভাবে নিয়ে যেতে পারছিলেন না বাবা ফেরদৌস। খবর পেয়ে কয়েকজন সংবাদকর্মী হাসপাতালে ছুটে গিয়ে শিশু খাদিজাকে নিয়ে তাৎক্ষনিক সংবাদ প্রকাশ করলে বিভিন্ন জন তার চিকিৎসার জন্য সহযোগিতা করতে থাকে। পরের দিন ১৫ নভেম্বর শিশু খাজিদাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসার টাকা যোগাতে নিজের আয়ের একমাত্র  সম্বল ভ্যানটিও বিক্রি করে দেন বাবা ফেরদৌস।

গতকাল শনিবার সকালে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকরা শিশু খাদিজাকে দ্রুত উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। কিন্তু টাকার অভাবে শিশু খাদিজাকে নিয়ে বাড়ি চলে যান ফেরদৌস আলী। অবশেষে শনিবার সন্ধ্যায় অর্থের কাছে হেরে গিয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন শিশু খাদিজা। রোববার তার নামাজে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

শিশু খাদিজার বাবা ফেরদৌস আলী বলেন, টাকার অভাবে চিকিৎসা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আজ আমি আমার সুস্থ হওয়া মেয়েটিকে হারালাম। জীবনের শেষ সম্বল ভ্যানটিও বিক্রি করে মেয়েকে বাঁচাতে পারলাম না। এখন স্ত্রী ও বাকি সন্তানদের কীভাবে আয় করে খাওয়াবো?

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএডি/জেএইচ

English HighlightsREAD MORE »