ওমিক্রন সংক্রমণ প্রতিরোধে আখাউড়া স্থলবন্দরে বাড়তি সতর্কতা

ঢাকা, শুক্রবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২২,   ১৫ মাঘ ১৪২৮,   ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

ওমিক্রন সংক্রমণ প্রতিরোধে আখাউড়া স্থলবন্দরে বাড়তি সতর্কতা

আখাউড়া (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:৪২ ৫ ডিসেম্বর ২০২১  

করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ‘ওমিক্রন’ সংক্রমণ প্রতিরোধে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দরে বাড়তি সতর্কতা

করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ‘ওমিক্রন’ সংক্রমণ প্রতিরোধে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দরে বাড়তি সতর্কতা

করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ‘ওমিক্রন’ সংক্রমণ প্রতিরোধে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দরে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করা হয়েছে। কোনো ভারতীয় আসামাত্র তাদের কাছে করোনাভাইরাস পরীক্ষার কাগজপত্র আছে কি-না সেটা নিশ্চিত করা হচ্ছে। কারো কোনো উপসর্গ আছে কি-না সেটিও নিশ্চিত করা হচ্ছে।

আখাউড়া স্থলবন্দর ইমিগ্রেশন সূত্র জানায়, বর্তমান সময়ে প্রতিদিন গড়ে ভারত ও বাংলাদেশি দুইশতাধিক যাত্রী এ বন্দর দিয়ে পারাপার হচ্ছে। এসব যাত্রীরা চিকিৎসা ও ব্যবসায়িক ভিসায় যাতায়াত করছেন। 

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বলছে, ভারত থেকে আসা যাত্রীরা স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে আসছে কি-না সেটি যেমন দেখা হচ্ছে তেমনিভাবে ওমিক্রন উপসর্গ থাকলে তাৎক্ষণিক পরীক্ষা করার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত উপসর্গ নিয়ে আসা কোনো যাত্রী পাওয়া যায়নি। 

আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে বাংলাদেশে আসা ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলার বাসিন্দা সুমন দেব জানান, নো-ম্যানসল্যান্ড পার হওয়ার পর ইমিগ্রেশন কার্যালয়ের সামনে ‘হেলথ স্ক্যানিং বুথ’এ তাদের করোনা পরীক্ষার কাগজ দেখাতে হয়েছে। কোনো ধরনের উপসর্গ আছে কি-না সেটি জানতে চাওয়া হয়েছে।  

আখাউড়া স্থলবন্দর ইমিগ্রেশন পুলিশের ইনচার্জ মো. আব্দুল হামিদ জানান, স্বাস্থ্যবিভাগের একটি টিম বন্দরে কাজ করছে। নির্দেশনা অনুযায়ী যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষাসহ বিভিন্ন ব্যবস্থা নিচ্ছেন তারা। পুলিশও এ বিষয়ে সতর্ক আছে।   

হেলথ স্ক্যানিং বুথে দায়িত্বরত চিকিৎসক ফয়জুন্নেচ্ছা আমীন জানান, কোনো ভারতীয় আসামাত্র তাদের কাছে করোনাভাইরাস পরীক্ষার কাগজপত্র আছে কি-না সেটা নিশ্চিত করা হয়। কারো কোনো উপসর্গ আছে কি-না সেটিও নিশ্চিত করা হচ্ছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন ডা. মো একরাম উল্লাহ জানান, পরিস্থিতি অনুযায়ী নির্দেশনাও দ্রুত পরিবর্তন হচ্ছে। সর্বশেষ ২ ডিসেম্বর আসা নির্দেশনা অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিভাগ কাজ করছে। কারো কোনো উপসর্গ থাকলে তার তাৎক্ষণিক পরীক্ষার নির্দেশনা দেওয়া আছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ

English HighlightsREAD MORE »