কুষ্টিয়ায় হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৭ জানুয়ারি ২০২২,   ১৩ মাঘ ১৪২৮,   ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

কুষ্টিয়ায় হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:১৬ ৩০ নভেম্বর ২০২১  

জজ আদালত, কুষ্টিয়া: ফাইল ফটো

জজ আদালত, কুষ্টিয়া: ফাইল ফটো

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলায় পাওনা চাওয়াকে কেন্দ্র করে ইমারুল ইসলামকে হত্যার মামলায় আসামি সাইদুর রহমানকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। সেইসঙ্গে তাকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরো একবছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে কুষ্টিয়া অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. তাজুল ইসলাম এ রায় দেন।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি সাইদুর রহমান দৌলতপুর উপজেলার জামালপুর গ্রামের মকলেছ আলীর ছেলে। রায় ঘোষণার সময় তিনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রায় ঘোষণার পরপরই দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিকে পুলিশ পাহারায় জেলা কারাগারে পাঠানো হয়। এ মামলায় অপর আসামি ও একই উপজেলার জয়রামপুর গ্রামের কিসমত আলীর ছেলে ওমর আলীকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে ২০১২ সালের ৯ আগস্ট বিকেলে বাঁশের খুটি (লাঠি) দিয়ে পাওনাদার ইমারুল ইসলামের মাথায় আঘাত করে রক্তাক্ত জখম ও গুরুতর আহত করে আসামি সাইদুর রহমান। অজ্ঞান ও আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায় স্থানীয়রা। অবস্থার অবনতি হলে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। রাজশাহী যাওয়ার পথে সেদিন রাত ১টার দিকে তার মৃত্যু হয়। স্বজনরা তার লাশ নিয়ে দৌলতপুর থানার যান। পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। ১০ আগস্ট ইমারুল ইসলামের স্ত্রী আফরোজা খাতুন বাদী হয়ে দৌলতপুর থানার একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন হয়।

পরে মামলার তদন্ত শেষে ২০১৩ সালের ১৭ নভেম্বর পুলিশ আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করে। এরপর আদালত এ মামলায় সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে ৩০ নভেম্বর রায় ঘোষণার দিন ধার্য করেন। ১৩ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য-প্রমাণ শেষে আদালত এ রায় দেন।

আদালতের পিপি অনুপ কুমার নন্দী বলেন, হত্যা মামলায় দোষী প্রমাণিত হওয়ায় আসামি সাইদুর রহমানকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। একই সঙ্গে তাকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ১ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে। রায় ঘোষণার পরপরই দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিকে পুলিশ পাহারায় জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।
 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ

English HighlightsREAD MORE »