অভিমানে কুড়িগ্রাম থেকে ঢাকায় চলে এলো শিশু নাঈম

ঢাকা, রোববার   ২২ মে ২০২২,   ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯,   ২০ শাওয়াল ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

অভিমানে কুড়িগ্রাম থেকে ঢাকায় চলে এলো শিশু নাঈম

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:১৯ ১৮ নভেম্বর ২০২১  

নাঈম

নাঈম

পরিবারের সঙ্গে অভিমান করে ঢাকায় চলে এসেছে কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার ১০ বছর বয়সী নাঈম। শিশুটি বর্তমানে ঢাকার মিরপুর-১ বেড়িবাঁধ এলাকার এক রেস্তোরাঁকর্মীর হেফাজতে রয়েছে।

নাঈম কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী পৌরসভার মনিরচর এলাকার ভাঙারি ব্যবসায়ী বাদশার ছেলে ও উপজেলার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র।

স্বজনরা জানান, বুধবার সকালে বাড়ি থেকে একই উপজেলার বেরুবাড়ি এলাকায় নানার বাড়িতে যায় নাঈম। সেখান থেকে বাড়ি না ফিরে ঢাকায় চলে যায়। রাত ১টার দিকে গাবতলী বাসস্ট্যান্ডে তাকে কান্না করতে দেখেন বরিশালের বাসিন্দা সবুজ হোসেন। তিনি ঢাকার মিরপুর-১ বেড়িবাঁধ এলাকার সেয়ারিল্যান্ড রেস্টুরেন্টের কর্মী। শিশুটিকে কাঁদতে দেখে নিজের কাছে রেখে দেন সবুজ।

নাঈমের কাছ থেকে বিস্তারিত তথ্য নিয়ে বৃহস্পতিবার ‘ঐক্যবদ্ধ নাগেশ্বরী’ নামের ফেসবুকের একটি গ্রুপ পেজে ছবি-সম্বলিত একটি পোস্ট দেন সবুজ। বিষয়টি শিশুটির এলাকাবাসীর নজরে এলে পরিবারের কাছে খবর পৌঁছে যায়। পরে স্থানীয়দের কাছ থেকে মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করে শিশুটির পরিবারের সঙ্গে সবুজ যোগাযোগ করেন।

নাঈমের বাবা বাদশা বলেন, ছোট ভাই বাদলের মাধ্যমে জানতে পেরেছি সে ঢাকা শহরে আছে। বাদল তার ছবি ফেসবুকে দেখেছে। আমরা ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছি।

তিনি বলেন, নাঈম মাঝে মধ্যে তার নানার বাড়িসহ এলাকার বিভিন্ন স্থানে যায়। বেশিরভাগ সময় আমার কথার অবাধ্য হয়ে চলে। বুধবার সকালে সে তার নানার বাড়ি চলে যায়। পরে শাসনের ভয়ে বাড়ি না ফিরে অভিমানে ঢাকায় চলে যায়।

শিশু নাঈমকে নিজ হেফাজতে রাখা মিরপুর-১ বেড়িবাঁধ এলাকার সেয়ারিল্যান্ড রেস্টুরেন্টের কর্মী সবুজ হোসেন বলেন, মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে চিন্তা করে শিশুটিকে নিয়ে এসে খাবার খাইয়ে যত্নসহকারে নিজের কাছে রেখে দেই। সে নাকি রাগ করে বাসা থেকে ঢাকায় চলে এসেছে। আমি শিশুটিকে তার পরিবারের কাছে পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করছি।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর

English HighlightsREAD MORE »