গাজীপুরে হামলা-ভাঙচুর, জামায়াত-শিবিরের ৩২ নেতাকর্মী গ্রেফতার

ঢাকা, শনিবার   ০৪ ডিসেম্বর ২০২১,   অগ্রহায়ণ ২০ ১৪২৮,   ২৭ রবিউস সানি ১৪৪৩

গাজীপুরে হামলা-ভাঙচুর, জামায়াত-শিবিরের ৩২ নেতাকর্মী গ্রেফতার

গাজীপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:৩০ ২৪ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ১৫:২৮ ২৪ অক্টোবর ২০২১

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

গাজীপুরের কাশিমপুর বাজার এলাকায় হামলা ও প্রতিমা ভাঙচুরের ঘটনায় জামায়াতের সংশ্লিষ্টতা পেয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় পৃথক তিনটি মামলায় এখন পর্যন্ত জামায়াত-শিবিরের ৩২ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গত ১৪ অক্টোবর কাশিমপুর বাজার এলাকায় তিনটি মন্দিরে প্রতিমা ভাঙচুর করা হয়। ঐ রাতেই কাশিমপুর বাজারের রাধাগোবিন্দ মন্দির পরিচালনা কমিটির সভাপতি বাবুল রুদ্র, কাশিমপুর পশ্চিমপাড়া এলাকার পারিবারিক মন্দির পরিচালনাকারী সুবল চন্দ্র দাস ও পালপাড়া নামাবাজার এলাকার সার্বজনীন পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি পরিমল পাল বাদী হয়ে পৃথক তিনটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় এজাহারভুক্ত ২০ জন ও অজ্ঞাত ১০০-১৫০ জনকে আসামি করা হয়।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার জাকির হাসান জানান, জামায়াতে ইসলামীর নেতাদের নির্দেশ ও প্রলোভনে ১০০ থেকে ১৫০ জন মিছিল নিয়ে কাশিমপুর বাজার এলাকায় তিনটি মন্দিরে হামলা ও প্রতিমা ভাঙচুর করেন। সেসময় ঘটনাস্থল থেকে ২০ জনকে আটক করা হয়। পরবর্তীতে এ ঘটনায় পৃথক তিনটি মামলা দায়ের করা হয়। পরে গ্রেফতারকৃতদের দুইদিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদের বরাতে উপ-পুলিশ কমিশনার জানান, জামায়াতের নেতাদের নির্দেশে তারা সেখানে জড়ো হন। তারা মিছিল বের করে হামলা ও ভাঙচুর চালান। হামলার ঘটনায় জামায়াতের কোনাবাড়ি থানা আমির কবির হোসেন ও স্থানীয় ওয়ার্ড ইউনিটের এক সভাপতিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এছাড়া গোপন বৈঠক করার সময় আরো ১০ জামায়াত, শিবিরের নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে তাদের বিরুদ্ধে আরো একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম/এইচএন