এসপি হয়েই ধর্ষকদের প্রকাশ্যে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীর

ঢাকা, মঙ্গলবার   ৩০ নভেম্বর ২০২১,   অগ্রহায়ণ ১৭ ১৪২৮,   ২৩ রবিউস সানি ১৪৪৩

ধর্ষকদের প্রকাশ্যে শাস্তির দাবি এসপি মাহিরার

জয়পুরহাট প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৫১ ২১ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ১৯:০৪ ২১ অক্টোবর ২০২১

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

এক ঘণ্টার জন্য জয়পুরহাটের এসপির দায়িত্ব পালন করলো জয়পুরহাট সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী ও  এনসিটিএফ এর শিশু সাংবাদিক  নুসরাত মাহিরা। 

ন্যাশনাল চিলড্রেন টাস্ক ফোর্সে (এনসিটিএফ) এর আয়োজন গার্লস টেক ওভার অনুষ্ঠানে বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১ টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২ পর্যন্ত জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে প্রতীকী পুলিশ সুপারের দায়িত্ব পালন করেন নুসরাত মাহিরা।

দায়িত্ব নিয়েই জয়পুরহাটের পাঁচ উপজেলাকে নারীবান্ধব করতে ও নারীর প্রতি সহিংসতা রোধে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অনুরোধ জানান নুসরাত মাহিরা। প্রতীকী দায়িত্ব নিয়ে ধর্ষকদের প্রকাশ্যে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করার প্রস্তাব দেন নুসরাত। 

তিনি বলেন, জয়পুরহাট  জেলায়  নারীর প্রতি সহিংসতা দিন দিন বেড়ে চলছে। নারী ও কিশোরী নির্যাতনের প্রেক্ষাপটে একজন মেয়ে হিসেবে এদেশের লাখ লাখ কিশোরীর মতো স্বপ্ন দেখি একটি সুস্থ, নিরাপদ পরিবেশ এবং সুন্দর সমাজের। একটি ধর্ষণমুক্ত, ইভটিজিংমুক্ত নারী ও শিশুবান্ধব জয়পুরহাট জেলা গড়ে তুলতে সবাইকে এগিয়ে আশার আহবান জানান।

পুলিশ সুপার মাছুম আহাম্মদ ভুঞা বলেন, নারীদের বাদ দিয়ে কোনো সমাজের উন্নয়ন সম্ভব নয়। নারীদের নিয়েই আমাদের সমাজকে এগিয়ে নিতে হবে। নারীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। 

তিনি বলেন, যে সব রাষ্ট্র যারা নারীর ক্ষমতায়ন দিয়েছে তারাই এগিয়ে গেছে। তাই নারীর সুরক্ষা ও ক্ষমতায়ন না দিলে আমাদের উন্নয়ন টেকসই হবে না। সমাজ ব্যবস্থাকে ভালো রাখতে হলে পরিবারকে সবার আগে এগিয়ে আসতে হবে। পরিবার থেকেই সমাজ ব্যবস্থার পরিবর্তনের জন্য ভূমিকা রাখতে হবে। নারী-পুরুষের সমতা অর্জন করতে পারলেই আমরা টেকসই উন্নয়ন সম্ভব হবে হবে বলে তিনি জানান।

এনসিটিএফ এর জেলা উপদেষ্টা তিতাস মোস্তফা সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, জয়পুরহাট এনসিটিএফ জেলা ভলন্টিয়ার তৃষা রানী, সালেহুর রহমান সজীব, সভাপতি কে এম সাজিন, সাধারণ সম্পাদক লেফতাকুল মদিনা।

প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল এর ‌‌‘গার্লস টেকওভার’ কর্মসূচির আওতায় ন্যাশনাল চিলড্রেন টাস্কফোর্সের (এনসিটিএফ) সহযোগিতায় নারী নেতৃত্ব উদ্বুদ্ধকরণ কর্মসূচির আওতায় এই দায়িত্ব প্রদান করা হয়। এর মাধ্যমে একজন কিশোরী, কন্যা শিশু অথবা যুব নারীকে নেতৃত্ব প্রদানকারীর ভূমিকা পালন করতে সহায়তা করা হয় যাতে করে তার আত্মবিশ্বাস বাড়ে এবং নিজের স্বপ্ন পূরণে সে অঙ্গীকারবদ্ধ হয়।

এ ঘণ্টার এসপি নুসরাত মাহিরা দায়িত্ব শেষে সম্মাননা স্মারক তুলে দেন এসপি মাছুম আহাম্মদ ভুঞা। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে