চাঁদাবাজির প্রতিবাদে আখাউড়া স্থলবন্দরে পণ্য পরিবহন বন্ধ 

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২১,   অগ্রহায়ণ ১৮ ১৪২৮,   ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

চাঁদাবাজির প্রতিবাদে আখাউড়া স্থলবন্দরে পণ্য পরিবহন বন্ধ 

আখাউড়া (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:২১ ১৯ অক্টোবর ২০২১  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া আন্তর্জাতিক স্থল বন্দরে চাঁদাবাজির অভিযোগে প্রতিবাদে আমদানিকৃত পণ্য পরিবহন বন্ধ রেখেছে জেলা ট্রাক মালিক গ্রুপ এবং ট্রাক এবং ট্রাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়ন। 

মঙ্গলবার দিনভর ভারত থেকে আমদানিকৃত পণ্য পরিবহন বন্ধ রেখেছে ট্রাক মালিক গ্রুপ ও ট্রাক ও ট্রাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়ন। পণ্য খালাস করতে না পারায় বন্দরে আটকা পড়েছে ভারতীয় পণ্যবাহী ৩৮টি ট্রাক। আমদানিতে দেখা দিয়েছে জটিলতা। পাশাপাশি বন্দরের লোড-আনলোড কাজে জড়িত শতাধিক শ্রমিক আয় রোজগার থেকে বঞ্চিত হয়েছে। দ্রুত এ সমস্যার সমাধান না হলে আমদানিতে জটিলতা দেখা দিতে পারে বলে মনে করেন বন্দর সংশ্লিষ্টরা। 

জানা যায়, স্থানীয় ১১ জনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ এনে সম্প্রতি ডিসি ও এসপি বরাবর একটি স্মারকলিপি দেয় জেলার পরিবহনের দুটি সংগঠন। স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়, প্রভাবশালী ব্যক্তিরা জোর পূর্বক তাদের পরিবহনকৃত ট্রাক থেকে চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করছে। সাত দিনের মধ্যে বিষয়টির সমাধান করার অনুরোধ করা হয়। জেলা প্রশাসন বিষয়টির সুরাহা না করায় তারা পণ্য পরিবহন বন্ধ করে দিয়েছে। 

এ ব্যাপারে জেলার ট্রাক-পিকআপ শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো. সাখাওয়াত হোসেন খোকন বলেন, প্রশাসনের কাছে স্থলবন্দরে স্থানীয় প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির বিচার চেয়ে ৭ দিনের আল্টিমেটাম দিয়েছিলাম তার সময় শেষ হয়েছে। প্রশাসন কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ায় আখাউড়া স্থলবন্দরে পণ্য পরিবহন অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করেছি। সমাধান না হওয়া পর্যন্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ সারাদেশে পণ্য পরিবহন বন্ধ রাখা হবে।

আখাউড়া স্থলবন্দরের সিএন্ডএফ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মো. মোবারক হোসেন জানান, ভারত থেকে আমদানিকৃত পণ্যবাহী ট্রাক স্থলবন্দরে প্রবেশ করছে। খালাস করতে পর্যাপ্ত পরিমাণে ট্রাক এখানে নেই। মালামাল পরিবহনে ব্যবহৃত দুটি ট্রান্সপোর্ট রয়েছে তাদেরকে জিজ্ঞাসা করা হলে তারা বলছে জেলা ট্রাক মালিক গ্রুপ স্থলবন্দরে কোনো ট্রাক আসতে দিচ্ছে না। ফলে আমদানিকৃত মালামাল পরিবহনে স্থলবন্দরে স্থবিরতার সৃষ্টি হয়েছে। 

আখাউড়া স্থলবন্দরের সহকারী পরিচালক (ট্রাফিক) মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, বন্দরের কার্যক্রম স্বাভাবিক রয়েছে ভারত থেকে ৫৮ টি পণ্যবাহী ট্রাক স্থল বন্দরে প্রবেশ করেছে। তবে তার বিপরীতে পণ্য খালাস করতে স্থলবন্দরে ৩টি খালি ট্রাক প্রবেশ করেছে যা অন্যদিনের তুলনায় অনেক কম। আমদানীকারক ট্রাক না আনতে পারায় ট্রাক আটকা পড়েছে। এটা বন্দরের আমদানীকারকদের বিষয়। আমাদের কিছু করার নেই। 

ডিসি হায়াত-উদ-দৌলা খান বলেন, ট্রাক মালিক ও শ্রমিক ইউনিয়নের একটি অভিযোগ পেয়েছি। তাদের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা যদি পণ্য পরিবহন বন্ধ রাখে তাহলে তাদের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টির সমাধান করা হবে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে