ফাঁস লাগিয়ে মাথা-মুখ থেঁতলে নৃশংস হত্যাযজ্ঞ চালায় ১৬ বছরের আলিফ

ঢাকা, সোমবার   ০৬ ডিসেম্বর ২০২১,   অগ্রহায়ণ ২২ ১৪২৮,   ২৯ রবিউস সানি ১৪৪৩

ফাঁস লাগিয়ে মাথা-মুখ থেঁতলে নৃশংস হত্যাযজ্ঞ চালায় ১৬ বছরের আলিফ

সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:০৯ ১৬ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ১৩:০৮ ১৭ অক্টোবর ২০২১

স্বজনদের আহাজারি

স্বজনদের আহাজারি

মানিকগঞ্জের সিংগাইরে পাবজি গেম খেলা নিয়ে দ্বন্দ্বে হামলায় আহত এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার ভোরে সাভার এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

এর আগে, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার সায়েস্তা ইউনিয়নের দক্ষিণ সাহরাইল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ১৪ বছর বয়সী রাজু একই গ্রামের মোসলেম উদ্দিনের ছেলে ও দক্ষিণ সাহরাইল কিন্ডারগার্টেনের ছাত্র।

রাজুর বাবা মুসলেম জানান, পাবজি গেম ও বিভিন্ন আইডি হ্যাক করতো উপজেলার দক্ষিণ সাহরাইল রাজু কোরাইশির ১৬ বছরের ছেলে আলিফ। বিষয়টি সবাইকে জানিয়ে দেওয়ার কথা বলে রাজু। এরই জের ধরে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কৌশলে রাজুকে সাইকেলে নবাবগঞ্জ উপজেলার শোল্লা ইউনিয়নের রুপারচর এলাকার কালীগঙ্গা নদীর তীরে কাশবনে নিয়ে যায়। সেখানে রাজুকে ইট দিয়ে মাথায় আঘাত করে। এরপর রাজুর গায়ের জামা খুলে মুখে ঢুকিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে মাথা ও মুখ থেঁতলে মৃত্যু নিশ্চিত করে। এরপর দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে আলিফ।

এদিকে, রাজুকে খুঁজে না পেয়ে আলিফের বাড়িতে যান স্বজনরা। আলিফ ও তার পরিবার বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে। একপর্যায়ে রাত ৯টার দিকে গুরুতর অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে সাহরাইল ইব্রাহিম মেমোরিয়াল হাসপাতালে নেয়া হয়। এরপর রাজুকে সাভার এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন চিকিৎসকরা। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার ভোরে রাজু মারা যায়। এ ঘটনায় সকাল ১০টার দিকে আলিফের বাড়িতে ঘেরাও করেন বিক্ষুদ্ধরা।

সিংগাইর থানার ওসি শফিকুল ইসলাম মোল্লা জানান, বিক্ষুদ্ধরা অভিযুক্ত আলিফকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় বাড়িতে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেন তারা। এতে দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর