মায়ের মৃত্যুতে আসামি বাবা, সাক্ষী মেয়ে

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৯ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ৪ ১৪২৮,   ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

মায়ের মৃত্যুতে আসামি বাবা, সাক্ষী মেয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২৩:০২ ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১   আপডেট: ২৩:০৩ ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

ময়মনসিংহ জেলার ফুলপুর উপজেলার রুপসী ইউনিয়নের বিহারিঙ্গা গ্রামে স্ত্রীকে যৌতুকের জন্য পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে স্বামী দেলোয়ারের ভাষ্য, হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তার স্ত্রী মারা গেছেন।

বুধবার ফুলপুর থানায় নারী ও শিশু আইনে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন নিহতের মা রশীদা বেগম। এ ঘটনায় অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

নিহত রিতা আক্তার নওগাঁ জেলার বদলগাছি থানার পলিশা গ্রামের ইব্রাহীম খানের মেয়ে। আর তার স্বামী বিহারিঙ্গা গ্রামের বীরমুক্তিযোদ্ধা মৃত সাইফুল ইসলামের সন্তান। 

জানা গেছে, দেলোয়ার গত সোমবার গভীর রাতে স্ত্রী রিতা আক্তারকে (২৭) ব্যাপক মারধর করেন। এক পর্যায়ে স্ত্রী অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকলে স্বামী নিজেই চিৎকার করে স্থানীয়দের জানান, তার স্ত্রী স্টোক করে জ্ঞান হারান।

এর কিছুক্ষণ পরেই মারা যান রিতা আক্তার। পরে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে স্ত্রী রিতা আক্তারের পরিবারকে দেলোয়ার জানান, রিতা হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা গেছেন। মঙ্গলবার দুপুরে তাকে দাফন করা হবে।

এ ঘটনার খবর পেয়ে ফুলপুর থানা-পুলিশ ঘটনাস্থালে গিয়ে রিতা আক্তারের কাফনে মোড়ানো লাশ পরীক্ষা করে। এ সময় তার পিঠে ও কপালে মারাত্মক জখমের চিহ্ন দেখতে পায়। 

এদিকে পুলিশকে নিহতের ছোট মেয়ে আনিকা (৬) বলেন, রাতে বাবা ও মায়ের ঝগড়া হয়। মাকে ভীষণ মারপিট করেন বাবা। 

ফুলপুর থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, নিহতের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। বাকি আসামিদেরকে দ্রুত গ্রেফতার করা হবে। মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে আজ পরিবারের কাছে পাঠানো হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর