মানুষের মাঝেই নিরাপদ আশ্রয়ে কালোমুখো হনুমান, খাচ্ছে রুটি-কলা

ঢাকা, সোমবার   ১৮ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ৩ ১৪২৮,   ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

মানুষের মাঝেই নিরাপদ আশ্রয়ে কালোমুখো হনুমান, খাচ্ছে রুটি-কলা

বরিশাল প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০০:০৭ ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১  

খাবারের জন্য বিরিয়ানীর দোকানের সামনে বসে আছে একটি কালোমুখো হনুমান

খাবারের জন্য বিরিয়ানীর দোকানের সামনে বসে আছে একটি কালোমুখো হনুমান

বরিশাল শহরে বেশ কিছুদিন ধরে বাড়ির ছাদে, গাছের ডালে ও মানুষের মাঝে ঘুরে বেড়াচ্ছে দুটি কালোমুখো হনুমান। যেন মানুষের মাঝেই নিজেদের নিরাপদ আশ্রয়স্থল খুঁজে পেয়েছে প্রাণী দুটি। আবার মানুষের দেওয়া রুটি-কলা খেয়ে মেটাচ্ছে নিজেদের ক্ষুধাও।

বেশ কিছুদিন ধরেই বরিশাল শহর ও বিভিন্ন স্থানে দেখা যাচ্ছে কালোমুখো হনুমান দুটিকে। কখনো বিরিয়ানীর দোকানের সামনে গিয়ে খাবার খাচ্ছে, আবার কখনো দেয়ালের উপর বসে কলা খাচ্ছে। শুক্রবার দুপুরে নগরীর জেলখানার মোড়ে দেখা মিলেছে ক্ষুধার্ত হনুমান দুটির। চারপাশে মানুষের ভিড় দেখে জেল খানার মসজিদের ছাদে কিছুক্ষণ লাফালাফি করছে, আবার অন্য কোথাও গিয়ে খাবার খুঁজছে। প্রাণী দুটির ছবি তুলতে দেখা গেছে বিভিন্ন বয়সের মানুষকে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কয়েক বছর আগে একটি ট্রাকে চড়ে প্রথম বরিশাল শহরে আসে একটি কালোমুখো হনুমান। কিছুদিন শহরে ঘোরাফেরা করে হঠাৎ উধাও হয়ে যায়। এর কয়েকদিন পর বানারীপাড়া পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলরের বাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে দেখা যায় আরেকটি হনুমান। এরপর সেটিও উধাও হয়ে যায়। সম্প্রতি একসঙ্গে বরিশাল শহরের এদিক-ওদিক ঘুরে বেড়াতে দেখা যাচ্ছে একজোড়া হনুমানকে। তারা নির্ভয়ে মানুষের মাঝে ঘুরে বেড়াচ্ছে-খাবার খাচ্ছে। বাড়ির ছাদ কিংবা গাছের ডালে রাত কাটাচ্ছে। যেন মানুষের মাঝেই নিজেদের নিরাপদ আশ্রয় খুঁজে পেয়েছে প্রাণী দুটি।

জেলাখানা মোড়ের বাসিন্দা কবির সরদার জানান, হনুমান দুটি কখনো কারো ক্ষতি করে না, কাউকে বিরক্তও করে না। নিজেদের মতো ঘুরে বেড়ায়, ক্ষুধা লাগলে খাবারের খোঁজে বিভিন্ন দোকান কিংবা বাজারে ছুটে যায়। মানুষও প্রাণী দুটির ক্ষতি করে না, উল্টো রুটি-কলাসহ বিভিন্ন ধরনের খাবার দেয়।

এ বিষয়ে বরিশাল সদর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তার মোবাইলে বারবার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর