বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণে স্কুলছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা, প্রেমিক গ্রেফতার

ঢাকা, শুক্রবার   ২২ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ৭ ১৪২৮,   ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণে স্কুলছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা, প্রেমিক গ্রেফতার

নওগাঁ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:৫৭ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১  

গ্রেফতারকৃত আব্দুল মোমিন: ফাইল ফটো

গ্রেফতারকৃত আব্দুল মোমিন: ফাইল ফটো

নওগাঁয় বিয়ের প্রলোভনে প্রেমিকের ধর্ষণে স্বীকার হয়ে নবম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রী আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়েছে। স্কুলছাত্রী তার প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নিয়ে বিয়ের দাবি করলে তাকে অস্বীকার করা হয়। এমনকি তাকে মারপিট করে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়।

সন্তানের পরিচয় ও স্ত্রী স্বীকৃতির দাবিতে বৃহস্পতিবার সকালে আব্দুল মোমিন নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করা হলে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত যুবক সদর উপজেলার মৃধাপাড়া চক-এলাম মহল্লার সাজেদুর রহমানের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, আব্দুল মোমিন বিবাহিত। বিয়ের পরও তার প্রতিবেশী ওই স্কুলছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে। বিয়ের প্রলোভন দিয়ে একপর্যায়ে শারীরিক সম্পর্ক করে। এতে স্কুলছাত্রী আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। এ ঘটনায় মেয়েটি বাড়িতে একাধিকবার আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর মেয়েটি বিয়ের দাবি নিয়ে আব্দুল মোমিনের বাড়িতে অবস্থান নেয়। আব্দুল মোমিন প্রেমের বিষয়টি অস্বীকার এবং তাকে মারপিট করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়।

বুধবার বিকেলে ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রীসহ তার পরিবার থানায় গিয়ে মৌখিক অভিযোগ করে। বৃহস্পতিবার সকালে অভিযোগটি আমলে নিয়ে পুলিশ আব্দুল মোমিনকে আটক করে।

ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রীর মা বলেন, আমার মেয়ের সঙ্গে যে অন্যায় করা হয়েছে তার সঠিক বিচার চাই। আমরা গরিব মানুষ।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই জান্নাতুন ফেরদৌসী বলেন, মামলার আসামিকে আটকের পর আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

নওগাঁ সদর থানার ওসি (তদন্ত) রাজিবুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় স্কুলছাত্রীর মা বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার আব্দুল মোমিনের বিরুদ্ধে মামলা করে। মামলার পর তাকে গ্রেফতার করে দুপুরে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ