শ্বাসরোধে হত্যার আগে ধর্ষণ করা হয় কনস্টেবলের স্ত্রীকে

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ১ ১৪২৮,   ০৭ সফর ১৪৪৩

শ্বাসরোধে হত্যার আগে ধর্ষণ করা হয় কনস্টেবলের স্ত্রীকে

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:২৬ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১  

নিহত বিলকিস আক্তার

নিহত বিলকিস আক্তার

মানিকগঞ্জে ভাড়া বাসায় পুলিশ কনস্টেবলের স্ত্রী বিলকিস আক্তার হত্যার তিনদিন পর রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার লুটে নেয়ার জন্যই জুস ও কোমল পানীয়ের সঙ্গে ঘুমের ওষুধ খাওয়ানোর পর বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয় বিলকিসকে। হত্যার আগে তাকে ধর্ষণও করা হয়।

এ ঘটনায় নারীসহ চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- রাজবাড়ী সদর উপজেলার হুগলাডাঙ্গি গ্রামের মো. কবির হোসেন , তার স্ত্রী আঁখি মনি ওরফে লিপি আক্তার, একই গ্রামের রিয়াজ উদ্দিন সরদার ও বগুড়ার ভান্ডারবাড়ি গ্রামের মো. শাকিল হাসান। তারা সবাই সাভারের আশুলিয়ায় বাসা ভাড়া নিয়ে থাকতেন।

বুধবার দুপুরে নিজ কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান মানিকগঞ্জের এসপি মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খান।

এসপি জানান, ঘটনার দিন পূর্ব পরিচিত লিপি আক্তার ওরফে আঁখি ঘুমের ওষুধ মেশানো জুস ও কোমল পানীয় নিয়ে বিলকিসের বাড়িতে বেড়াতে যান। এরপর রাতে আঁখির স্বামী কবির হোসেনসহ আরো তিনজন আসেন। তারা বিলকিসকে কোমল পানীয় ও তার দুই ছেলেমেয়েকে জুস পান করতে দেন। পরে বিলকিস ও তার ছেলে ফাহিম ঘুমিয়ে পড়ে কিন্তু বিলকিসের মেয়ে দোলা আক্তার কিছুক্ষণ জেগেই ছিল। সে পাশের ঘরের দরজার ফাঁকা দিয়ে দেখতে পায় ঘাতকরা তার মায়ের হাত-পা বাঁধছে। ভয়ে কিছু না বলে ভাইয়ের পাশে শুয়ে থাকে মেয়েটি। এক পর্যায়ে সেও ঘুমিয়ে পড়ে। সকালে ঘুম থেকে উঠে মায়ের লাশ দেখতে পেয়ে আশপাশের লোকজনকে ডেকে আনে দুই ছেলেমেয়ে।

তিনি আরো জানান, বিলকিসের হাত-পা ও মুখ বাঁধার পর আসামি রিয়াজ উদ্দিন তাকে ধর্ষণ করে। এরপর স্বর্ণালঙ্কার ও টাকা লুট করে পালিয়ে যায়। প্রাথমিক তদন্তে বিলকিসের মেয়ের কাছ থেকে প্রথমে শুধু লিপি ওরফে আঁখির নাম জানতে পারে পুলিশ। এরপর তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় সাভার, গাজীপুর ও পাবনায় অভিযান চালিয়ে লিপিসহ চারজনকে গ্রেফতার করা হয়। ওই সময় তাদের কাছ থেকে তিনটি মোবাইল ও স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার করা হয়।

বুধবার দুপুরে আসামিরা হত্যার স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে। পরে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান এসপি মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খান।

সংবাদ সম্মেলনে মানিকগঞ্জ জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর