ছোট্ট শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা, লাশ গুম করতে ফেলে দিলো পুকুরে

ঢাকা, রোববার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ৫ ১৪২৮,   ১০ সফর ১৪৪৩

ছোট্ট শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা, লাশ গুম করতে ফেলে দিলো পুকুরে

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৩:০১ ৩ আগস্ট ২০২১  

গ্রেফতার দুলাল মিয়া

গ্রেফতার দুলাল মিয়া

মাত্র সাড়ে তিন বছরের শিশু। এ বয়সের তার ওপর কুনজর পড়ে প্রতিবেশী ২২ বছর বয়সী দুলালের। নিজের খায়েশ মেটাতে ছোট্ট মেয়েটিকে ধর্ষণ করেন তিনি। ধর্ষণ করেই ক্ষান্ত হননি, গলা টিপে মেরেই ফেলেন। বিষয়টি ধামাচাপা দিতে লাশটি পুকুরে ফেলে দিন খুনি দুলাল।

চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি কক্সবাজারের চকরিয়ার। চলতি বছরের ১৭ ফেব্রুয়ারি দুপুরে উপজেলার কোনাখালী ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ জঙ্গলকাটা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার ছয়দিন পর পুকুর থেকে শিশুটির ভাসমান লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তখন অপমৃত্যু মামলা করেন নিহতের মা। কিন্তু ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যার বিষয়টি উঠে আসায় সোমবার (২ আগস্ট) থানায় নিয়মিত মামলা করেন মেয়েটির বাবা।

এরপর অভিযান চালিয়ে চাঞ্চল্যকর এ ঘটনার মূলহোতা দুলাল মিয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশ। দুলাল দক্ষিণ জঙ্গলকাটা এলাকার মো. আবু তাহেরের ছেলে।

চকরিয়া থানার এসআই রাজীব চন্দ্র সরকার জানান, চলতি বছরের ১৭ ফেব্রুয়ারি দুপুরে শিশুটি নিখোঁজ হয়। এর ছয়দিন পর সকালে পার্শ্ববর্তী আবুল হাসেমের পুকুরে শিশুটিকে ভাসতে দেখে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা। পরে লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

এরপর সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি শেষে লাশটি কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। পাঁচ মাসেরও বেশি সময় পর শিশুটির ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়া যায়। সেই প্রতিবেদনে উঠে আসে শিশুটিকে প্রথমে ধর্ষণ, এরপর শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে।

চকরিয়া থানার ওসির দায়িত্বপ্রাপ্ত ওসি (তদন্ত) মো. জুয়েল ইসলাম জানান, ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনের তথ্যমতে শিশুকে ধর্ষণ, শ্বাসরোধে হত্যা ও লাশ গুম করার অপচেষ্টার ধারায় মামলা করা হয়েছে। ঘটনার মূলহোতা দুলাল মিয়াকেও এরই মধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে। মঙ্গলবার তাকে আদালতে পাঠানো হবে।

মামলার এজাহারে শিশুটির বাবা উল্লেখ করেন, দুলাল সম্পর্কে তার ভাগনে। একই এলাকায় তাদের বাড়ি। ঘটনার দিন দুপুরে তার সাড়ে তিন বছরের মেয়ে বাড়ির ছোট শিশুদের সঙ্গে খেলছিল। কিছুক্ষণ পর মেয়েটি নিখোঁজ হয়। এর ছয়দিন পর শিশুটির লাশ পুকুরে ভাসতে দেখে স্থানীয়রা। পরে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে। তবে ওইদিন থেকেই আত্মগোপনে চলে যান দুলাল। পরে এলাকায় ফেরেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর