সরলতার সুযোগ নিয়ে অন্তর আমার সর্বনাশ করেছে 

ঢাকা, সোমবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ৫ ১৪২৮,   ১১ সফর ১৪৪৩

সরলতার সুযোগ নিয়ে অন্তর আমার সর্বনাশ করেছে 

জামালপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:০১ ৩১ জুলাই ২০২১  

সরলতার সুযোগ নিয়ে অন্তর আমার সর্বনাশ করেছে 

সরলতার সুযোগ নিয়ে অন্তর আমার সর্বনাশ করেছে 

জামালপুরের বকশীগঞ্জে বিয়ের দাবি নিয়ে প্রেমিকের ঘরে দুই দিন ধরে অনশন করছেন অনার্স পড়ুয়া এক কলেজ ছাত্রী। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় শুরু হলে প্রেমিক ইলিয়াস হক ওরফে অন্তর চম্পট দিয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বগারচর ইউপির খাসের গাঁও গ্রামে। 

জানা যায়, জামালপুর জাহেদা শফি মহিলা কলেজের অনার্স তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীর সঙ্গে পার্শ্ববর্তী খাসের গাঁও গ্রামের শফিউল হকের ছেলে ইলিয়াস হক অন্তরের ৯ মাস ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছে। মাঝে মধ্যে তারা দুজন একান্তভাবেও দেখা করতেন। 

কলেজ ছাত্রীর পরিবার জানায়, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অন্তর কলেজ ছাত্রীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করেছেন। শুক্রবার সকালে অন্তর ফোন করে ওই কলেজ ছাত্রীকে তার বাড়িতে দেখা করতে বলেন। পরে কলেজছাত্রী প্রেমিক ইলিয়াস হক অন্তরের বাড়িতে যায় এবং তাকে বিয়ে করার জন্য অন্তরকে বলেন। কিন্তু অন্তর বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানালে বিয়ের দাবিতে সেখানেই অনশন শুরু করেন ওই কলেজ ছাত্রী। 

বিষয়টি জানাজানি হলে ওই এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়। অনশন শুরু করার পর প্রেমিক অন্তর বাড়ি থেকে পালিয়ে গেছে। 

অনশনরত কলেজ ছাত্রীর ভাই জানান, বোনকে বাড়ি থেকে বের করে দিতে তাকে শারীরিক নির্যাতন করা হয়েছে। এমনকি কিছু খেতেও দিচ্ছে না তাকে। বোনকে বাড়ি থেকে বের করতে হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন। 

ওই কলেজ ছাত্রী জানান, আমার সরলতার সুযোগ নিয়ে অন্তর আমার সর্বনাশ করেছে। আমার অধিকার প্রতিষ্ঠা করেই বাড়ি ফিরব।  

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে