ফরিদপুরে ‘ফালুর খালে’ এক সপ্তাহ ধরে বন্দি কুমির, ধরা যায়নি দুইদিনেও

ঢাকা, শুক্রবার   ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ১০ ১৪২৮,   ১৫ সফর ১৪৪৩

ফরিদপুরে ‘ফালুর খালে’ এক সপ্তাহ ধরে বন্দি কুমির, ধরা যায়নি দুইদিনেও

ফরিদপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৪১ ৩০ জুলাই ২০২১   আপডেট: ১৭:৪১ ৩০ জুলাই ২০২১

ফালুর খাল: এ জলাধারেই আটকে আছে কুমিরটি

ফালুর খাল: এ জলাধারেই আটকে আছে কুমিরটি

ফরিদপুরের একটি জলাধারে প্রায় এক সপ্তাহ ধরে বন্দি হয়ে আছে মিঠাপানির একটি কুমির। দুইদিন চেষ্টা করেও কুমিরটি ধরতে পারেনি বন্যপ্রাণি সংরক্ষণ বিভাগ।

জানা গেছে, কুমিরটি বর্তমানে নর্থ চ্যানেল ইউনিয়নের ৩৮ দাগ এলাকায় জলিল মোল্লার ডাঙ্গি গ্রামে অবস্থান করছে। এ জলাধার এলাকা ‘ফালুর খাল’ হিসেবে পরিচিত। জলাধারটির দৈর্ঘ্য প্রায় এক হাজার মিটার ও প্রস্থ ৭৫ থেকে ১০০ মিটার। স্থানভেদে গভীরতা ৫-২০ মিটার পর্যন্ত। এটি মূল পদ্মা নদী থেকে ১০০ মিটার দূরে।

কুমিরটি ধরতে বুধবার খুলনা থেকে বন্যপ্রাণি সংরক্ষণ বিভাগ খুলনা অঞ্চলের ১২ সদস্যের একটি দল এ অভিযান শুরু করে। ওইদিন দুপুর দেড়টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টা পর্যন্ত পাঁচ ঘণ্টার অভিযান চালিয়েও ধরা সম্ভব হয়নি কুমিরটিকে। বড় জাল জোগাড় করে শুক্রবার আবার অভিযান শুরু করা হয়। কিন্তু বিকেল ৫টা পর্যন্ত কুমিরটি আটক করা সম্ভব হয়নি।

বন্যপ্রাণি সংরক্ষণ বিভাগ খুলনা অঞ্চলের বিভাগীয় কর্মকর্তা নির্মল কুমার পাল বলেন, কুমিরটি বিরল প্রজাতির মিঠাপানির কুমির। এটি বাংলাদেশ থেকে বিলুপ্ত হওয়ার পথে। এর আগে, ২০১৫ সালে মাগুরায় মধুমতী নদী থেকে এ প্রজাতির একটি কুমির উদ্ধার করা হয়েছিল।

তিনি আরো বলেন, অন্তত ২০ বছর আমরা এ ধরনের উদ্ধার অভিযান চালাইনি। এজন্য আনুষঙ্গিক সামগ্রী আমাদের কাছে নেই। ছোট আকারের একটি জাল দিয়ে কুমিরটি বুধবার আটকে ফেলেছিলাম। কিন্তু জালের প্রস্থ কম হওয়ায় কুমিরটি জাল থেকে বের হয়ে যায়। শুক্রবার আবার আটকের চেষ্টা চলছে। তবে এখন পর্যন্ত আটক করা সম্ভব হয়নি।

২৪ জুলাই সালাম খাঁর ডাঙ্গি গ্রামের হযরত মিয়া নামে এক যুবক পদ্মা নদী থেকে আনুমানিক চার কেজি ওজনের একটি বোয়াল মাছ ধরেন। মাছটির মুখে দড়ি বেঁধে ফালু খালের মধ্যে চুবিয়ে রাখেন। কিছুক্ষণ পর তিনি মাছটি তুলে আনার জন্য দড়ি ধরে টান দিলে কুমিরটি দেখতে পান।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর