নিজ হাতে কোরবানির পশুর মাংস বিতরণ করলেন পরীমনি

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৭ জুলাই ২০২১,   শ্রাবণ ১২ ১৪২৮,   ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

নিজ হাতে কোরবানির পশুর মাংস বিতরণ করলেন পরীমনি

বিনোদন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:১৯ ২২ জুলাই ২০২১   আপডেট: ১৫:০৪ ২২ জুলাই ২০২১

নিজ হাতে অসহায় শিল্পীদের মাঝে কোরবানির মাংস বিতরণ করলেন পরীমনি

নিজ হাতে অসহায় শিল্পীদের মাঝে কোরবানির মাংস বিতরণ করলেন পরীমনি

ঢাকার সিনেমার আলোচিত ও দর্শকপ্রিয় নায়িকা পরীমনি। গত কয়েক বছরের ধারাবাহিকতায় এবারো তিনি বিএফডিসির অসহায় শিল্পীদের জন্য ছয়টি গরু কোরবানি দিয়েছেন।

ঈদুল আজহার দিন বিকেলে এফডিসির পাশে শাহ পানিপন্থি মাজারে এসে চলচ্চিত্রাঙ্গনের অসহায় শিল্পীদের মধ্যে কোরবানির পশুর মাংস বিতরণ করেন পরীমনি। বুধবার বিকাল ৬টার দিকে পরীমনি ওই মাজারের সামনে আসেন। এসময় তার সঙ্গে ছিলেন চলচ্চিত্র পরিচালক রানা।

অসচ্ছল ও সুবিধাবঞ্চিত শিল্পী ও কলাকুশলীদের জন্যই তার এ উদ্যোগ। ২০১৬ সালে এফডিসিতে গরু কোরবানি দেওয়া শুরু করেন পরীমনি। এর ধারাবাহিকতায় গত বছরও পাঁচটি গরু কোরবানি দিয়েছেন।

পরীমনি বলেন, এফডিসি আমার দ্বিতীয় পরিবার। কয়েক বছর ধরে পরিবারের মানুষদের জন্য কোরবানি দিচ্ছি। তারই ধারাবাহিকতায় এবার ছয়টি গরু কোরবানি দেই। প্রতি বছরই একটি করে বাড়বে। পরিবারের সদস্যরা খুশি থাকলে আমি তাদেই তৃপ্ত। এফডিসি আমার দ্বিতীয় পরিবার যতদিন বেঁচে থাকবো এফডিসিতে কোরবানি দেব। 

তিনি বলেন, মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে কোরবানি নিয়ে এবার একটু বেশি সতর্কতা অবলম্বন করতে হয়েছে। পুরোপুরি স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাংস বিতরণ করেছি।

রুপালি পর্দার এই তারকার হৃদয় মানবিক। তা তিনি প্রমাণ করেছেন বহুবার। সস্প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন অভিনেত্রী ভুলু বারীর দিকে। করোনাকালে কাজের অভাবে তিনি অসহায় অবস্থায় দিন কাটাচ্ছিলেন। দশ হাজার টাকা দিয়ে সহায়তা করলেন বাংলাদেশের প্রথম সবাক চলচ্চিত্র ‘মুখ ও মুখোশ’-এর অভিনেত্রী বিলকিস বারীর মেয়ে ভুলু বারীকে।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিএএস