ভারতে অক্সিজেন সংকটে মারা যায়নি কেউ, দাবি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের

ঢাকা, বুধবার   ২৮ জুলাই ২০২১,   শ্রাবণ ১৩ ১৪২৮,   ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

ভারতে অক্সিজেন সংকটে মারা যায়নি কেউ, দাবি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৫৬ ২১ জুলাই ২০২১  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

মহামারি করোনাভাইরাসে বিশ্বে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্থ দেশগুলোর একটি ভারত। দেশটিতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরুর পরই দেখা দেয় তীব্র অক্সিজেন সংকট, যার কারণে হাজারো মানুষের মৃত্যুর খবরও পাওয়া গেছে। তবে সম্প্রতি ভারতের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রনালয় দাবি করেছে, দেশে অক্সিজেনের অভাবে কোনো মৃত্যু হয়নি। সরকারি নথিতে কোনো রাজ্যই উল্লেখ করেনি অক্সিজেনের অভাবে করোনা রোগীর মৃত্যুর কথা।

ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসিসহ স্থানীয় মিডিয়া স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এই বক্তব্য প্রচারের পর ক্ষোভে ফেটে পড়তে দেখা গেছে সাধারণ ভারতীয়দের।

তাদের কয়েক জন বলছেন, এপ্রিল-মে মাসে প্রতিদিনই ভারতের কোথাও না কোথাও অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যুর খবর এসেছে। মানুষ এক সিলিন্ডার অক্সিজেনের জন্য হাহাকার করেছে। সেখানে সরকার কীভাবে এমন মন্তব্য করতে পারে তা তারা ভাবতে পারছেন না।

দিল্লিতে ৫০ শয্যা বিশিষ্ট একটি হাসপাতাল পরিচালনা করেন ডা. গৌতম সিং। তিনি বিবিসিকে বলেন, এপ্রিল-মে মাসে অক্সিজেনের ভয়াবহ সংকট ছিল। অক্সিজেনের অভাবে অনেক রোগীই মরতে বসেছিলেন। বিভিন্নভাবে বিভিন্ন স্থান থেকে অক্সিজেন ধার করে এনে রোগীদের জীবন বাঁচাতে হয়েছে।

ডা. গৌতম বলেন, এমন অনেক হাসপাতালের কথা তিনি জানেন যেখানে অনেক করোনা আক্রান্ত এবং উপসর্গধারী কেবলমাত্র অক্সিজেনের অভাবে মারা গেছেন।

এদিকে, করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হলে ভারতের স্বাস্থ্য অবকাঠামো যে কতটা ভঙ্গুর তা প্রকাশ হয়ে পড়ে। হাসপাতালে শয্যা সংকট, অক্সিজেনের অভাব এবং ওষুধের তীব্র সংকট দেখা দেয় সে সময়।

সে সময় করোনা আক্রান্তদের জন্য শয্যা এবং অক্সিজেন চেয়ে সাহায্যের আবেদনে ভরে যায় সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলো। বিশ্বের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম সে সময় ভারতের অক্সিজেন সংকট নিয়ে শিরোনামও করেছিল।

তাই, যখন সরকারিভাবে বলা হয় ভারতে অক্সিজেনের অভাবে কারো মৃত্যু হয়নি; তখন তা সাধারণ ভারতীয়দের ক্ষুব্ধ ও হতবাক করে বলে জানিয়েছে বিবিসি।
 

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী