মিয়ানমারে কোভিডে আক্রান্ত হয়ে কারাবন্দি রাজনীতিকের মৃত্যু

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৭ জুলাই ২০২১,   শ্রাবণ ১২ ১৪২৮,   ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

মিয়ানমারে কোভিডে আক্রান্ত হয়ে কারাবন্দি রাজনীতিকের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:৩৬ ২১ জুলাই ২০২১  

ছবি: নাইয়ান উয়িন

ছবি: নাইয়ান উয়িন

মিয়ানমারে সামরিক জান্তার হাতে গ্রেফতার প্রবীণ রাজনীতিক নাইয়ান উয়িন কারাবন্দি অবস্থায় কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। তিনি দেশটির ক্ষমতাচ্যুত নেত্রী অং সান সু চির জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা ছিলেন।

কারাগারে করোনাভাইরাস সংক্রমণের শিকার হওয়ার পর তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল; সেখানেই মঙ্গলবার তার মৃত্যু হয় বলে তার দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমক্র্যাসি (এনএলডি) এক বিবৃতিতে জানিয়েছে।

দ্রুত বৃদ্ধি পাওয়া করোনাভাইরাস সংক্রমণ সামাল দিতে মিয়ানমার হিমশিম খাচ্ছে বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে।

চলতি বছরের ১ ফেব্রুয়ারি সু চির দল এনএলডির নির্বাচিত সরকারকে অভ্যুত্থানের মাধ্যমে হটিয়ে ক্ষমতা দখল করে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী। ওই সময় সু চিসহ এনএলডির জ্যেষ্ঠ নেতাদের গ্রেপ্তার করে কারাবন্দি করা হয়। ওই সময় ৭৮ বছর বয়সী নাইয়ান উয়িনকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।

গ্রেপ্তারের পর থেকে ইয়াঙ্গুনের ইনসেইন কারাগারে বন্দি ছিলেন উয়িন। সেখানে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হওয়ার পর গত সপ্তাহে সু চির সাবেক আইনজীবী এনএলডির এই মুখপাত্রকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল।

বিবৃতিতে উয়িনের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করে এনএলডি বলেছে, “এই দেশে একনায়কতন্ত্রের অবসান ঘটিয়ে একটি গণতান্ত্রিক ফেডারেল ইউনিয়ন প্রতিষ্ঠা করতে অসমাপ্ত লড়াই চালিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার করছি আমরা।”

দেশটির সেনাবাহিনীর নেতৃত্বাধীন স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেশন কাউন্সিলের তথ্য বিভাগ জানিয়েছে, জেলখানাগুলোতে করোনাভাইরাস রোগীদের চিকিৎসা দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

এক বিবৃতিতে তারা জানায়, নাইয়ান উয়িন আগে থেকেই ডায়াবেটিস ও হাইপারটেনশনে ভুগছিলেন, তাতেই তার মৃত্যু হয়েছে।

এতে আরও বলা হয়, এ পর্যন্ত ৩৭৫ জন কারাবন্দি কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছেন আর নাইয়ান উয়িনের আগেই ছয় জন মারা গেছেন।

গণতান্ত্রিক সরকারের কাছ থেকে সামরিক বাহিনী ক্ষমতা কেড়ে নেওয়ার পর থেকে শুরু হওয়া অশান্তির কারণে মিয়ানমারের কোভিড-১৯ সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের উদ্যোগগুলো বিশৃঙ্খল হয়ে পড়েছে।

দেশটির সামরিক বাহিনী নিয়ন্ত্রিত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাতে রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা জানিয়েছে, মিয়ানমারের পাঁচ কোটি ৪০ লাখ লোকের মধ্যে এ পর্যন্ত ১৬ লাখ লোককে টিকার অন্তত একটি ডোজ দেওয়া হয়েছে।

ওয়াল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, মিয়ানমারে এ পর্যন্ত দুই লাখ ৪০ হাজার ৫৭০ জন করোনাভাইরাস রোগী শনাক্ত হয়েছে এবং তাদের মধ্যে পাঁচ হাজার ৫৬৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী