মাকে বাবার হাত থেকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ হারাল ছেলে

ঢাকা, সোমবার   ২৬ জুলাই ২০২১,   শ্রাবণ ১১ ১৪২৮,   ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

মাকে বাবার হাত থেকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ হারাল ছেলে

বরগুনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:৫৮ ২৩ জুন ২০২১  

নিহত মো. সুমন (ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ)

নিহত মো. সুমন (ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ)

বরগুনায় বাবার ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মো. সুমন নামে এক কিশোর নিহত হয়েছে। বুধবার দুপুর ১২টার দিকে বরগুনার তালতলী উপজেলার টিএনটি সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

পরে পুলিশ ওই কিশোরের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। ঘটনার পর পালিয়ে গেছেন ঘাতক বাবা।

নিহত মো. সুমন তালতলী উপজেলার টিএনটি সড়কের আসাদুল খান ও সেলিনা বেগম দম্পতির ছেলে। এছাড়াও সে তালতলী সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল। 

পুলিশ ও প্রতক্ষদর্শীরা জানায়, আসাদুল ও সেলিনা দম্পতির মধ্যে পারিবারিক কলহ লেগেই থাকতো। এর ধারাবাহিকতায় বুধবার বেলা ১১টার দিকে তাদের মধ্যে ঝগড়া শুরু হয়। একপর্যায়ে আসাদুল তার স্ত্রী সেলিনাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করতে চাইলে মাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসে ছেলে সুমন। আসাদুলের ধারালো অস্ত্রের আঘাত তার স্ত্রী সেলিনার শরীরে না লেগে সুমনের কপালে লাগে। এতে বাবার ধারালো অস্ত্রের আঘাতে ঘটনাস্থলেই লুটিয়ে পড়ে সুমন।

পরে সুমনের বাবা আসাদুলসহ স্থানীয়রা সুমনকে উদ্ধার করে তালতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। হাসপাতালের চিকিৎসক ফাইজুর রহমান সুমনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন।

পরে বরিশাল নেয়ার পথে সুমনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে তাকে পথিমধ্যে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান তার বাবা আসাদুল। এ সময় চিকিৎসক সুমনকে মৃত ঘোষণা করলে হাসপাতালে মরদেহ রেখে পালিয়ে যান তার বাবা আসাদুল।

এ বিষয়ে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক কে এম তানজিরুল ইসলাম বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই মারা গেছে সুমন।

এ বিষয়ে সুমনের মা সেলিনা বেগম বলেন,  আমার স্বামী প্রায়ই আমাকে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে মারধর করেন। আমাকে রক্ষা করতে গিয়েই আমার ছেলে খুন হয়েছে।

তালতলী থানার ওসি মো. কামরুজ্জামান মিয়া বলেন, খবর পেয়েই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় মামলা করা হবে। ঘাতক বাবা আসাদুলকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

আমতলী থানার ওসি মো. শাহ আলম হাওলাদার বলেন, খবর পেয়ে সুমনের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। 

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম