‘প্রধানমন্ত্রী আমাগোরে মাথা খোঁজার ঠাঁই করে দিয়েছেন’

ঢাকা, বুধবার   ২৮ জুলাই ২০২১,   শ্রাবণ ১৪ ১৪২৮,   ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

‘প্রধানমন্ত্রী আমাগোরে মাথা খোঁজার ঠাঁই করে দিয়েছেন’

ভোলা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:৪৬ ২০ জুন ২০২১   আপডেট: ১৫:৪৮ ২০ জুন ২০২১

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে ভূমিহীন পরিবারগুলোর হাতে দুই শতক খাস জমি বন্দোবস্তের কাগজসহ দুই কক্ষবিশিষ্ট সেমি পাকা ঘরের চাবি তুলে দেয়া হয়। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে ভূমিহীন পরিবারগুলোর হাতে দুই শতক খাস জমি বন্দোবস্তের কাগজসহ দুই কক্ষবিশিষ্ট সেমি পাকা ঘরের চাবি তুলে দেয়া হয়। 

ভোলায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে দ্বিতীয় ধাপে ঘর পেলেন ৩৭১টি গৃহহীন ও ভূমিহীন পরিবার। রোববার সকাল ১১টার দিকে ভোলা সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে ভূমিহীন পরিবারগুলোর হাতে দুই শতক খাস জমি বন্দোবস্তের কাগজসহ দুই কক্ষবিশিষ্ট সেমি পাকা ঘরের চাবি তুলে দেয়া হয়। 

এ সময় ভোলা-১ আসনের এমপি ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা তোফায়েল আহমেদ ভার্চুয়ালি অংশ গ্রহণ করেন। ঘর পেয়ে  ভূমিহীন পরিবারগুলো সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। 

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ভোলার ডিসি মো. তৈফিক ই-লাহী চৌধুরী, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল মমিন টুলু, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেন,জেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম গোলদার, ভোলা প্রেসক্লাবের সভাপতি হাবিবুর রহমান, সদরের ইউএনও মিজানুর রহমান, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো ইউনুছ, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাইনুল হোসেন বিপ্লব। 

 প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে ভূমিহীন পরিবারগুলোর হাতে দুই শতক খাস জমি বন্দোবস্তের কাগজসহ দুই কক্ষবিশিষ্ট সেমি পাকা ঘরের চাবি তুলে দেয়া হয়। 

এর আগে প্রথম ধাপে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে জেলায় ৫২০টি পরিবারকে জমি ও ঘর দেয়া হয়েছিল। দ্বিতীয় ধাপের ৩৭১টিসহ জেলায় মোট ৮৯১টি পরিবারকে গৃহ নির্মাণ করে দেয়া হচ্ছে।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ ভার্চুয়ালি অংশ নিয়ে বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছেন তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বঙ্গবন্ধু স্বপ্ন দেখেছিলেন দেশের কোনো মানুষ ভূমিহীন, গৃহহীন থাকবে না। আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভূমিহীন ও গৃহহীন মানুষকে জমি ও ঘর দিয়ে বঙ্গবন্ধুর সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করছেন। ভোলায় দ্বিতীয় ধাপে ভূমি ও গৃহ প্রদান কার্যক্রম আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের আগে সুবিধাভোগী পরিবারের সঙ্গে মত বিনিময়কালে তোফায়েল আহমেদ এসব কথা বলেন।

ভোলায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে দ্বিতীয় ধাপে ঘর পেলেন ৩৭১টি গৃহহীন ও ভূমিহীন পরিবার।

তোফায়েল আহমেদ আরো বলেন, অসহায় ভূমিহীন ও গৃহহীন মানুষের কোনো দলমত নেই। গৃহ প্রদানকালে কে কোন দল করে তা দেখা হয়নি। প্রকৃত ভূমিহীন ও গৃহহীনকেই ঘর দেয়া হয়েছে।

ঘরে পেয়ে ভূমিহীন আব্দুল মন্নান রাঢ়ী, আনোয়ারা বেগম, রুহুল আমিনসহ আরো অনেকেই জানান, আগে আমাদের ঘর আছিল না রাস্তার ধারে থাকতাম, এহন প্রধানমন্ত্রী আমাগোরে মাথা খোঁজার ঠাঁই করে দিয়েছেন। এখন আমরা নিরাপথে থাকতে পারবো। এর জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে