ছদ্মবেশে ছিনতাই, মালামাল বিক্রি অনলাইনে

ঢাকা, বুধবার   ২৮ জুলাই ২০২১,   শ্রাবণ ১৪ ১৪২৮,   ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

ছদ্মবেশে ছিনতাই, মালামাল বিক্রি অনলাইনে

সিলেট প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:৩১ ১৩ জুন ২০২১  

প্রতারক চক্রের ৬ সদস্য গ্রেফতার

প্রতারক চক্রের ৬ সদস্য গ্রেফতার

মাদকের টাকা জোগাতে যাত্রী সেজে সিএনজি চালিত অটোরিকশা দিয়ে ছিনতাই করা হয়। এরপর ছিনতাই করা মোবাইলসহ অন্যান্য মালামাল ভুয়া ফেসবুক আইডি খুলে বিক্রি করা হয় অনলাইনে। তারপর ফেসবুক আইডি ডিঅ্যাক্টিভ করে চম্পট দেয় প্রতারকরা।

এমনই এক প্রতারক চক্রের সন্ধান পেয়েছে সিলেট মহানগর পুলিশ। অভিযান চালিয়ে একে একে প্রতারক চক্রের ৬ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, সিলেট মহানগর পুলিশের (এমসএমপি) জালালাবাদ থানার চরুগাও গ্রামের ইমাম হোসেনের ছেলে মো. শামীম মিয়া, মোগলাবাজার থানার কুচাই সুলতানপুর গ্রামের মো. খলকু মিয়ার ছেলে রুবেল, হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাট থানার সাটিয়াজুরি গ্রামের নুর হোসেনের ছেলে সোলেমান, একই জেলার নবীগঞ্জ থানার শাকপা টুকেরবাজার গ্রামের চান মিয়ার ছেলে আইনুল হক, মৌলভীবাজার সদর থানার চলকাপন আমতৈল গ্রামের নীল মিয়ার ছেলে আইয়ুব আলী ও তার বড় ভাই আব্দুশ সহিদ।

পুুলিশ জানায়, গত ২ জানুুয়ারি সিলেট জজ কোর্টের আইনজীবী সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে কদমতলী থেকে কুচাই যাওয়ার উদ্দেশ্যে সিএনজি অটোরিকশায় উঠেন। অটোরিকশায় চালকসহ ৫জন যাত্রী ছিলেন। কিছুদুর যাওয়ার পর ছুরি দিয়ে ভয় দেখিয়ে তার কাছ থেকে নগদ ১৫ হাজার টাকা ও মোবাইল ফোন নিয়ে যায় ছিনতাইকারীরা। পরে তাকে চলন্ত গাড়ি থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। এ ঘটনায় তিনি পরদিন ৩ জানুয়ারি এসএমপির মোগলাবাজার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে চারজনকে আটক করে। আটকের পর ছিনতাইকারীরা মাদকের টাকা জোগার করতে ছিনতাই করেছে বলে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। এছাড়া ছিনতাই করা টাকা নিজেদের মধ্যে ভাগভাটোয়ারা করে নেয় ও মোবাইল ফোন তিন হাজার টাকা দামে তাদের পরিচিত আইনুল হকের কাছে বিক্রি করে। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকেও আটক করে। আইনুলের দেয়া তথ্যে আরো পুলিশ আইয়ুব আলী ও আব্দুশ সহিদ আরো দুইজনকে আটক করে। তারা দুজনেই আপন ভাই।

পুলিশ জানায়, আটক আইয়ুব আলী ও আব্দুশ সহিদ ছিনতাই ও চুরি হওয়া মোবাইল কম টাকায় কিনে ভুয়া ফেসবুক আইডি খুলে বিক্রয় ডটকম ও সেলবাজারসহ বিভিন্ন অনলাইনে মাধ্যমে বিক্রি করে। পরে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ডিঅ্যাক্টিভ বা ডিজঅ্যাবল করে নেয়। 

পুলিশ আরো জানায়, অনলাইনে মোবাইল ফোন ক্রয়-বিক্রয়কারী চক্রের সক্রিয় অন্যতম প্রধান হোতা আপন দুইভাই দক্ষিণ সুরমা থানার শিববাড়ী এলাকার বাসিন্দা আব্দুস শহিদ ও আইয়ুব। নগরীর বিভিন্ন জায়গা হতে চুরি ও ছিনতাইকৃত মোবাইল ফোন ক্রয় করে অনলাইনে ফেইক আইডি তৈরি পূর্বক বিক্রয়.কমে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে তারা বিক্রয় করে থাকে। বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে চুরি ও ছিনতাইকৃত মোবাইল ফোন বিক্রয় করার পরপরই চক্রটি নিজেদের অপরাধ লুকানোর জন্য সংশ্লিষ্ট আইডি ডিজেবল (ডিলেট) করে দিয়ে নতুন আরেকটি আইডি তৈরি করে নতুনভাবে চুরি ও ছিনতাইকৃত মোবাইল ফোন বিক্রয় করার বিজ্ঞাপন প্রদান করে। এভাবেই দীর্ঘদিন যাবৎ তারা সিলেট শহরে চুরি ও ছিনতাইকৃত মোবাইল ফোন ক্রয়-বিক্রয়ের ব্যবসা করে নিরীহ মানুষদের প্রতারিত করে আসছে।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার বিএম আশরাফ উল্যাহ তাহের জানান, আইনজীবীকে ছিনতাইর ঘটনায় দায়ের করা মামলার তদন্তে এই ছিনতাইকারী চক্রের সন্ধান পায় পুলিশ। এরপর একে একে ওই চক্রের ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়া ছিনতাই কাজে জড়িত একটি সিএনজি অটোরিকশা উদ্ধার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে