‘তোর দুই মেয়ে মরতে চলেছে’ প্রবাসীর স্ত্রীকে চিঠি

ঢাকা, বুধবার   ০৪ আগস্ট ২০২১,   শ্রাবণ ২০ ১৪২৮,   ২৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

‘তোর দুই মেয়ে মরতে চলেছে’ প্রবাসীর স্ত্রীকে চিঠি

শার্শা (যশোর) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:৩১ ১২ জুন ২০২১  

প্রবাসীর স্ত্রীর কাছে পাঠানো চিঠি (ইনসেটে হাফিজুর রহমান)

প্রবাসীর স্ত্রীর কাছে পাঠানো চিঠি (ইনসেটে হাফিজুর রহমান)

যশোরের শার্শায় প্রবাসীর দুই সন্তানকে হত্যার হুমকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছে হাফিজুর রহমান নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় শার্শা থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন প্রবাসীর স্ত্রী। অভিযুক্ত হাফিজুর একই উপজেলার রাড়ীপুকুর গ্রামের ছাক্কু মিয়ার ছেলে। ওই প্রবাসীর বাড়ি উপজেলার বামুনিয়া সোনাতনকাটি গ্রামে। তিনি মালয়েশিয়ায় থাকেন।

জানা গেছে, কিছুদিন আগে বাগআঁচড়ায় এক দোকানে কাপড় কিনতে যান ওই প্রবাসীর স্ত্রী ও তার বোন। ওই সময় কৌশলে প্রবাসীর বোনের কাছ থেকে তার স্ত্রীর মোবাইল নম্বর নেন হাফিজুর। এরপর থেকেই প্রবাসীর স্ত্রীকে উত্ত্যক্ত ও ব্ল্যাকমেইল করার চেষ্টা করেন তিনি।

বিষয়টি বাগআঁচড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইলিয়াস কবির বকুল ও কায়বা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল মেম্বারকে জানানো হয়। এরপর তারা বাগআঁচড়া আইসি ক্যাম্পে বসে বিষয়টি মীমাংসা করে দেন। এরপরও প্রবাসীর স্ত্রীর পিছু ছাড়েননি হাফিজুর।

গত শনিবার মধ্যরাতে প্রবাসীর মেয়ের একটি ছবিতে লাল ক্রসচিহ্ন দিয়ে পাঠান হাফিজুর। তার অপর পিঠে প্রবাসীর স্ত্রীর উদ্দেশ্যে লেখা ছিল ‘ইউর টু (দুই) ডটার গোয়িং টু ডাই’ তোর ধরম (ধর্ম) স্বামীকে বল বাঁচাতে তোর দুই মেয়েকে- তোর দুই মেয়ে মরতে চলেছে। পারলে তোর ধরম (ধর্ম) স্বামীকে বল বাঁচাতে’।

প্রবাসীর স্ত্রী জানান, স্বামী বিদেশ থাকার সুবাদে তার নামে মিথ্যা অপবাদ রটিয়ে ব্ল্যাকমেইল করে টাকা হাতিয়ে নেয়ার উদ্দেশ্য ছিল হাফিজুরের। এতে ব্যর্থ হয়ে তিনি খুনের হুমকি দিচ্ছেন। হাফিজুর একজন নেশাখোর বলেও জানান প্রবাসীর স্ত্রী।

তিনি আরো জানান, হাফিজুর যেকোনো সময় তাদের মেরে ফেলতে পারেন। এ ব্যাপারে পুলিশের সহায়তা চেয়ে শনিবার দুপুরে শার্শা থানায় একটি অভিযোগ করেন তিনি।

শার্শা থানার ওসি বদরুল আলম খান বলেন, একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর