নদীতে ভেসে যাচ্ছিল নারীর লাশ, গলায় ছিল কলসি বাঁধা

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৫ জুন ২০২১,   আষাঢ় ২ ১৪২৮,   ০৩ জ্বিলকদ ১৪৪২

নদীতে ভেসে যাচ্ছিল নারীর লাশ, গলায় ছিল কলসি বাঁধা

জামালপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০২:৫৬ ১৯ মে ২০২১  

লাশের পাশে কলসি

লাশের পাশে কলসি

জামালপুর সদরের তুলসীরচর ইউনিয়নের গারামারা এলাকায় ব্রহ্মপুত্র নদ থেকে গলায় কলসি বাঁধা এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার দুপুরে লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহতের গলায় ওড়না দিয়ে কলসিটি বাঁধা ছিল। তবে ওই নারীর পরিচয় এখনো জানা যায়নি। তার বয়স ৩৫ বছর।

স্থানীয়রা জানায়, ভোরে গারামারা এলাকায় ব্রহ্মপুত্র নদ দিয়ে ভাটির দিকে লাশটি ভেসে যেতে দেখেন কিছু লোকজন। এ সময় ওই নারীর গলায় ওড়না দিয়ে বাঁধা কালো রঙের একটি বড় কলসিও দেখতে পান। পরে পুলিশে খবর দেন তারা। এরপর বেলা ১২টার দিকে লাশটি উদ্ধার করে গারামারা এলাকার আওতাধীন বারুয়ামারী ও নিকটবর্তী নরুন্দি তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত লোকজনের কেউ ওই নারীকে শনাক্ত করতে পারেনি। দুর্বৃত্তরা তাকে হত্যার পর গলায় কলসি বেঁধে ব্রহ্মপুত্র নদে ভাসিয়ে দিয়েছে বলে ধারণা গ্রামবাসী ও পুলিশের।

স্থানীয় বারুয়ামারী তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মো. আসাদুজ্জামান বলেন, ব্রহ্মপুত্রে ভাসমান ওই নারীর কোনো পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তার পরনে একটি ম্যাক্সি রয়েছে। লাশ এখনো পচন ধরেনি। তবে পেট ফুলে গেছে। তার শরীরে আঘাতের কোনো চিহ্ন পাওয়া যায়নি। সেই দিক থেকে মনে হচ্ছে দুর্বৃত্তরা সোমবার ভোরে বা দিনের কোনো এক সময় তাকে হত্যা করে গলায় কলসি বেঁধে ব্রহ্মপুত্রে ভাসিয়ে দিয়েছিল। কলসি ও ওড়নাটি উদ্ধার করা হয়েছে।

জামালপুর সদর থানার ওসি মো. রেজাউল ইসলাম খান বলেন, ওই নারীর লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে প্রাথমিক পর্যায়ে থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। পরবর্তীতে তার পরিচয় এবং স্বজনদের কোনো অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে। ওই নারীর পরিচয়সহ এ ঘটনার কারণ উদঘাটন ও জড়িতদের চিহ্নিত করতে মাঠে নেমেছে পুলিশ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর