‘পরিবারের লগে ঈদ করবার পারছি, এইডাই শান্তি’

ঢাকা, রোববার   ২০ জুন ২০২১,   আষাঢ় ৭ ১৪২৮,   ০৮ জ্বিলকদ ১৪৪২

‘পরিবারের লগে ঈদ করবার পারছি, এইডাই শান্তি’

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:১৪ ১৬ মে ২০২১  

যানজটের কারণে শম্ভুগঞ্জ থেকে কয়েক কিলোমিটার হেঁটেই ব্রিজ মোড়ে আসছেন যাত্রীরা

যানজটের কারণে শম্ভুগঞ্জ থেকে কয়েক কিলোমিটার হেঁটেই ব্রিজ মোড়ে আসছেন যাত্রীরা

‘কষ্ট কইরা আইছি আবার কষ্ট কইরা যাইতাছি। তবুও পরিবারের সবার লগে তো ঈদ করবার পারছি, এইডাই শান্তি। বাড়িত না আইলে তো কারোরই ভালা লাগতো না।’

বলছিলেন ঈদের ছুটি কাটিয়ে ময়মনসিংহের গফরগাঁও থেকে ফেরা মো. সোলাইমান হোসেন। তিনি গাজীপুরের একটি গার্মেন্টসে চাকরি করেন। তবে দূরপাল্লার বাস বন্ধ থাকায় ভোগান্তি নিয়েই তিনি ফিরছেন কর্মস্থলে। 

সোলাইমানের মতো এমন ভোগান্তি নিয়ে যার যার কর্মস্থলে ফিরতে হচ্ছে হাজারো কর্মজীবী নারী-পুরুষকে। সিএনজি, নছিমন, করিমন, ট্রাক, মিনিট্রাকে গন্তব্যে পৌঁছানোর চেষ্টা করছেন সবাই।

রোববার বিকেলে নগরীর পাটগুদাম ব্রিজ মোড়ে গিয়ে দেখা যায়, যানজটের কারণে শম্ভুগঞ্জ থেকে কয়েক কিলোমিটার হেঁটেই ব্রিজ মোড়ে আসছেন যাত্রীরা। তারা বলছেন, সোমবার থেকে খুলছে তাদের গার্মেন্টস, টেক্সটাইল মিল। তাই যে করেই হোক কর্মস্থলে ফিরতেই হবে।

হাঁটতে হাঁটতে কথা হয় সাভারগামী আরেক যাত্রী মঈনুল ইসলামের সঙ্গে, ফিরেছেন গৌরীপুর থেকে৷ তিনি চাকরি করেন নাভানা ফার্মাসিউটিকেলসে। সপরিবারে যাচ্ছেন কর্মস্থলে। 

যানজটের কারণে শম্ভুগঞ্জ থেকে কয়েক কিলোমিটার হেঁটেই ব্রিজ মোড়ে আসছেন যাত্রীরা

তিনি বলেন, সবাইকে নিয়ে গ্রামে ঈদ করতে না পারলে ঈদের আমেজ পাওয়া যায় না। গ্রামে বাবা-মা থাকেন। তাদেরও তো আশা থাকে। সেজন্যই গ্রামে আসা। এখন কাল থেকে অফিস যেহেতু খোলা তাই যেভাবেই হোক পৌঁছাতেই হবে।

হঠাৎ চোখে পড়লো একটি মিনি ট্রাকে গাদাগাদি করে যাচ্ছেন একসঙ্গে ১৫ জন যাত্রী। এসময় কথা হয় হাসনা আক্তার নামে আরেক গার্মেন্টসকর্মীর সাথে। তার ভাষ্য, কালকা থেইক্যা গার্মেন্টস খোলা। হেলেইজ্ঞা পুলাপান লইয়া ট্রাকো কইরাই রওনা দিছি। না গেলে তো চাকরি থাকতো না।

এ সময় দেখা গেল ঢাকাগামী ঈমান পরিবহনের একটি বাসও যাত্রী নিয়ে এসেছে হালুয়াঘাট থেকে। সেখানে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধিও। সরকারি নির্দেশনা না মানার কারণ জানতে চাইলে ওই বাসের হেলপার বলেন, ‘বেহেই ত গাড়ি লইয়া বাহির অইছে। তাই আমরাও বাহির অইলাম।’

ময়মনসিংহের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর সৈয়দ মাহবুব রহমান জানান, ঢাকাগামী কর্মজীবী মানুষের চাপ বাড়ার কারণে সড়কে গাড়িও বেড়েছে। তাই কিছু কিছু স্থানে যানজট লেগে যাচ্ছে। তবে যানজট নিরসনের আমাদের সদস্যরা কাজ করছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে