সৌরভ হত্যাকাণ্ডের উদ্দেশ্য মোটরসাইকেল ছিনতাই

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৫ জুন ২০২১,   আষাঢ় ২ ১৪২৮,   ০৩ জ্বিলকদ ১৪৪২

সৌরভ হত্যাকাণ্ডের উদ্দেশ্য মোটরসাইকেল ছিনতাই

সিলেট প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৪৩ ১৬ মে ২০২১   আপডেট: ১৮:৪৪ ১৬ মে ২০২১

রাইডার সৌরভ হত্যায় গ্রেফতারকৃত চার আসামি

রাইডার সৌরভ হত্যায় গ্রেফতারকৃত চার আসামি

সিলেটে মোটরসাইকেল রাইডার রেদওয়ান রশিদ চৌধুরী সৌরভ হত্যাকাণ্ডে জড়িত চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যেই তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে স্বীকার করেছে আসামিরা।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলার মোগলাবাজার থানার ছিছরাবান্দি গ্রামের লয়লু মিয়ার ছেলে মুজিবুর রহমান, ধোপাকান্দি গ্রামের খলিল মিয়ার ছেলে এনাম আহমদ, মৌলভীবাজারের রাজনগর থানার খলাগ্রামের বাসিন্দা জুয়েলুর রহমান, ধুলিজুরা গ্রামের বাসিন্দা রায়হান মিয়া।

শনিবার রাত থেকে রোববার ভোর পর্যন্ত সিলেটের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এ সময় আসামিদের দেয়া তথ্যে ঘটনাস্থল থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত পাথর ও হাতুড়ি উদ্ধার করা হয়।

আসামিদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় দুই রাইডারের মোটরসাইকেল

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (গণমাধ্যম) বিএম আশরাফ উল্ল্যাাহ তাহের জানান, গ্রেফতারকৃতরা একটি সক্রিয় ছিনতাইকারী চক্রের সদস্য। গত ১১ মে রাতে মোটরসাইকেল চালক রেদওয়ান রশিদ চৌধুরী সৌরভকে ভাড়ায় মোগলাবাজার থানার গফুরের বাঁধ এলাকায় নিয়ে যায় তারা। সেখানে মুজিবুর ও এনাম হাতুরি ও পাথরের টুকরো দিয়ে মাথায় আঘাত করে তাকে হত্যা করে। পরে লাশ পার্শ্ববর্তী ডোবায় ফেলে দেয়। ১৩ মে রাতে সৌরভের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

তিনি আরো জানান, এর আগে ৮ এপ্রিল বিয়ানীবাজারের আদিনাবাদ কাপন গ্রামের মোটরসাইকেল রাইডার গোলাম কিবরিয়া রাজুকেও একই হতযার চেষ্টা চালায় তারা। পরে মৃত ভেবে তাকে ফেলে চলে আসে। পরদিন স্থানীয়রা রক্তাক্ত অবস্থায় রাজুকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। ওই ঘটনায় গোলাম কিবরিয়া রাজুর বড় ভাই গিয়াস আহমদ মোগলাবাজার থানায় মামলা করেন।

আশরাফ উল্ল্যাহ তাহের জানান, নিহত রেদওয়ানের ভগ্নিপতি আব্দুর রহমানর মামলা করেন। একই স্থানে একইভাবে দুটি ঘটনা ঘটায় তদন্তে নামে পুলিশ। সাড়াশি অভিযান চালিয়ে শনিবার সন্ধ্যায় সিলেটের কদমতলীর তাজমহল রেস্টুরেন্টের কর্মচারী মুজিবুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার দেয়া তথ্যে গোলাপগঞ্জের আছিরখাল এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয় এনাম আহমদকে। জিজ্ঞাসাবাদে তাদের দেয়া তথ্যে মৌলভীবাজারের রাজনগর থানার খলাগ্রামের জুয়েলুর রহমানের কাছ থেকে সৌরভের মোটরসাইকেল ও ধুলিজুরা গ্রামের রায়হান মিয়ার কাছ থেকে রাজুর মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়। ওই সময় তাদেরও গ্রেফতার করে পুলিশ।

তিনি আরো জানান, জিজ্ঞাসাবাদে চার আসামির দেয়া তথ্যে নিহত রেদওয়ান রশিদ চৌধুরী সৌরভ ও আহত গোলাম কিবরিয়া রাজুর মোবাইল উদ্ধার করা হয়। এ সময় দক্ষিণ সুরমার দশহাল এলাকার শামসুল ইসলাম নামে আরেকজনকে আটক করা হয়। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর