পদ্মায় স্পিডবোট দুর্ঘটনার পেছনে ৮ কারণ

ঢাকা, রোববার   ২০ জুন ২০২১,   আষাঢ় ৮ ১৪২৮,   ০৮ জ্বিলকদ ১৪৪২

পদ্মায় স্পিডবোট দুর্ঘটনার পেছনে ৮ কারণ

তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন দাখিল

মাদারীপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:৫৫ ৯ মে ২০২১   আপডেট: ২০:৫৭ ৯ মে ২০২১

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

মাদারীপুরের শিবচরে পদ্মা নদীতে স্পিডবোট দুর্ঘটনায় ২৬ জন নিহতের ঘটনায় প্রতিবেদন দাখিল করেছে তদন্ত কমিটি। নৌ-পুলিশের দায়িত্বে অবহেলাসহ আটটি কারণে দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়া এ ধরনের দুর্ঘটনা রোধে ২৩টি সুপারিশ করেছে তদন্ত কমিটি।

রোববার দুপুরে মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুনের কাছে প্রতিবেদন জমা দেন তদন্ত কমিটির প্রধান ও স্থানীয় সরকার অধিদফতরের উপ-পরিচালক আজাহারুল ইসলাম।

জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন জানান, মাদকাসক্ত চালকের কারণেই এ দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে তদন্ত প্রতিবেদনে উঠে এসেছে। এ ধরনের দুর্ঘটনা রোধে ঘাটের সিন্ডিকেট ও অব্যবস্থাপনা দূর করা, পর্যাপ্ত লাইফ জ্যাকেট মজুত রাখা, অতিরিক্ত যাত্রীবহন না করাসহ ২৩টি সুপারিশ করেছে তদন্ত কমিটি। যা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর পাশাপাশি জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এর আগে, গত সোমবার (৩ মে) শিমুলিয়া থেকে বাংলাবাজার ঘাটে যাওয়ার পথে কাঁঠালবাড়িতে নোঙর করা একটি বাল্কহেডকে সজোরে ধাক্কা দেয় দ্রুতগতির স্পিডবোটটি। এতে প্রাণ হারান ২৬ জন যাত্রী। আহত হন স্পিডবোটের চালকসহ পাঁচজন। দুর্ঘটনার পর চালক মো. শাহ আলমকে গুরতর অবস্থায় শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। প্রশাসনের নির্দেশে তার ডোপ টেস্টের নমুনা পরীক্ষা করে দেখা যায়- চালক মাদকাসক্ত ছিলেন।

ওই ঘটনায় ঘাটের ইজারাদার শাহ আলম খান, স্পিডবোটের দুই মালিক চান্দু মিয়া, রেজাউল ও চালক শাহ আলমের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন কাঁঠালবাড়ি ঘাটের নৌ-পুলিশের এসআই লোকমান হোসেন। দুর্ঘটনার কারণ উদঘাটনে ছয় সদস্যদের তদন্ত কমিটি গঠন করে মাদারীপুর জেলা প্রশাসন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর