পালিয়ে বিয়ের এক বছর পর লাশ হয়ে ফিরলেন অন্তঃসত্ত্বা তরুণী

ঢাকা, শুক্রবার   ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ২ ১৪২৮,   ০৮ সফর ১৪৪৩

পালিয়ে বিয়ের এক বছর পর লাশ হয়ে ফিরলেন অন্তঃসত্ত্বা তরুণী

ফেনী প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:৪৬ ১ মে ২০২১  

স্বামী আকাশের সঙ্গে সীমা আক্তার

স্বামী আকাশের সঙ্গে সীমা আক্তার

প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে বিয়ের এক বছর পর লাশ হয়ে ফিরলেন সিমা আক্তার। পৃথিবীর আলো দেখতে পারলো না তার অনাগত সন্তানও। শুক্রবার রাতে দাদির কবরের পাশে দাফন করা হয় তাকে।

নিহত সিমা আক্তার ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার চরমজলিশপুর ইউনিয়নের চরগোপালগাঁওয়ের ইতালি প্রবাসী মো. ইব্রাহিমের মেয়ে। তিনি ফেনী জয়নাল হাজারী কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিলেন।

জানা গেছে, বগাদানা ইউনিয়নের ওবায়দুল হকের ছেলে আবদুল্লাহ আল মাহমুদ আকাশের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল সিমার। গত বছর ১০ রমজান পালিয়ে বিয়ে করেন তারা। এরপর তারা কখনো চট্টগ্রাম কখনো ঢাকায় অবস্থান করতে থাকেন। কয়েক মাস আগে আকাশ ঢাকার উত্তর বাড্ডা সংলগ্ন ভাটারা থানাধীন এলাকায় একটি ফ্ল্যাট ভাড়া নেন। তখন সিমা আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। দেড় মাস আগে আকাশের পরিবারও সেই বাসায় ওঠে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে আকাশের মোবাইল থেকে পাশের ফ্ল্যাটের এক নারী সিমার বাবাকে ফোন করে জানান তার মেয়ে মারা গেছে। ঢাকার বাসা থেকে লাশ নিয়ে যেতে বলা হয় তাকে। খবর পেয়ে ইব্রাহিম ঢাকায় গিয়ে জানতে পারেন তার মেয়ে আত্মহত্যা করেছে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে শুক্রবার বিকেলে পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়।

এ ঘটনায় স্বামী আকাশকে আসামি করে ভাটারা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন সিমার বাবা ইব্রাহিম। তিনি বলেন, আকাশ পরিকল্পিতভাবে আমার মেয়েকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রেখে আত্মহত্যা বলে প্রচার করেছে। আমি মেয়ে হত্যার বিচার চাই।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর