আগাম বোরেতে আশাবাদী কৃষক, কাটা-মাড়াই শুরু

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৮ মে ২০২১,   জ্যৈষ্ঠ ৪ ১৪২৮,   ০৫ শাওয়াল ১৪৪২

আগাম বোরেতে আশাবাদী কৃষক, কাটা-মাড়াই শুরু

বগুড়া প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:৫৮ ১৮ এপ্রিল ২০২১  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

বগুড়া জেলার কৃষি ভাণ্ডার হিসেবে খ্যাত নন্দীগ্রাম উপজেলায় পুরোদমে শুরু হয়েছে বোরো ধান কাটা মাড়াইয়ের কাজ। গত মৌসুমে ধানের দাম ভালো পাওয়ায় আগাম বোরো ধান কাটা মাড়াইয়ে ঝুঁকে পড়েছে উপজেলার কৃষকেরা। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় বোরো ধান কাটা মাড়াইয়ে এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষকরা।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, এ বছর ১৯ হাজার ৭৪৫ হেক্টর জমিতে বোরো ধান আবাদ হয়েছে। যার উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ১ লাখ ১৯ হাজার ৮৩৬ মেট্রিক টন। তবে এর চেয়ে বেশি লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

সম্প্রতি সরোজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার একটি পৌরসভা ও পাঁচটি ইউনিয়নে বোরো ধান কাটা মাড়াইয়ের কাজে নেমেছেন কৃষকরা।

উপজেলার বুড়ইল ইউনিয়নের সিধইল গ্রামের কৃষক ফরিদুল ইসলাম ফটিক। তিনি এবার ২৫ বিঘা জমিতে ধানের চারা রোপণ করেছেন। কথা হয় তার সঙ্গে। তিনি বলেন, এবার আমন ধানের দাম ভালো পাওয়ায় আগাম বোরো ধানের রোপণ শুরু করেছিলাম। ধানের ফলন ভালো হয়েছে, আশা করছি গত বছরের বোরো ধানের ক্ষয়-ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে পারবো।

উপজেলার বিজয়ঘট গ্রামের কৃষক সাহাদত আলীর সঙ্গে কথা হয়। তিনি বলেন, এবার ধানের ফলন খুব ভালো হবে এবং জমিতে কোনো ধরনের রোগ-বালাই নেই। গত বছর শিলা বৃষ্টির কারণে খুব একটা ভালো ফলন হয়নি। তাই আমরা আগাম বোরো ধান আবাদ করেছি।

উপজেলার ভাদুম গ্রামের কৃষক আজিজার রহমান বলেন, গতবারের তুলনায় এবার ভালো ফলন হয়েছে। ধানের দামও পাওয়া যাবে এবার।

নন্দীগ্রাম সদর ইউনিয়নের রনবাঘা হাটে গিয়ে দেখা যায়, প্রতি মণ ধান ১০৭০ টাকা থেকে ১১০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

কৃষকরা বলছেন, রোপণ থেকে শুরু করে ডিজেল, বিদ্যুৎ ও সারের কোনো সংকট ছিল না। এছাড়াও ছিল না কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ। সবকিছু ঠিক থাকলে গত বছরের শিলা বৃষ্টিতে বোরো ধানের যে ক্ষতি হয়েছিল তা কাটিয়ে উঠা যাবে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আদনান বাবু বলেন, ধানের ফলন বাড়ানোর জন্য আমরা আপ্রাণ চেষ্টা করছি। কৃষকদের কাছে গিয়ে পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। এবার আবহাওয়া অনুকূলে ছিল, তাই ফলনও ভালো হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম