বাড়ি ফাঁকা পেলেই মেয়েকে ধর্ষণ করতো বাবা

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৬ মে ২০২১,   বৈশাখ ২৩ ১৪২৮,   ২৩ রমজান ১৪৪২

বাড়ি ফাঁকা পেলেই মেয়েকে ধর্ষণ করতো বাবা

নেত্রকোনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:৩৮ ১৪ এপ্রিল ২০২১   আপডেট: ১৪:০৮ ১৪ এপ্রিল ২০২১

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

নিজের মেয়েকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে দীর্ঘদিন ধরে ধর্ষণের অভিযোগে সন্তোষ মিয়া নামে এক নির্মাণ শ্রমিক বাবাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) রাতে নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার কান্দিউড়া ইউনিয়নের কুন্ডুলী গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় সন্তোষ মিয়ার রাজমিস্ত্রী ছেলে নাজমুল মিয়া বাদী হয়ে পিতাকে আসামি করে ওই রাতেই থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

বুধবার সকালে কেন্দুয়া থানার ওসি কাজী শাহনেওয়াজ বলেন, মেয়ের জবানবন্দিতে আটক করেছি। মামলাও হয়েছে। তার ভাই বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। বুধবার সকালে আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে সন্তোষকে আদালতে পাঠানো হবে। সেইসঙ্গে ধর্ষণের শিকার তার মেয়েকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে।

মামলার বাদী জানান, তারা তিন ভাই এক বোন। তাদের বাবা সন্তোষ মিয়া একজন রাজমিস্ত্রী। তিনি দুই বিয়ে করেছিলেন। প্রথম মায়ের দুই ছেলে ও দ্বিতীয় মায়ের এক ছেলে এক মেয়ে। কাজের সুবাদে তারা সবাই ঢাকার গাজীপুরে থাকতেন। মা গার্মেন্টস কর্মী ও বাবা রাজমিস্ত্রী এবং এক ভাই সিএনজি চালক। বাদী নিজেও রাজমিস্ত্রী। বোনটি কিশোরী। সবাই শ্রমিক হওয়ায় বোন বাসায় একাই থাকতো। বাড়ি ফাঁকা পেলেই নানা ধরনের ভয়ভীতি দেখিয়ে তাদের বাবা দীর্ঘদিন ধরে ধর্ষণ করে আসছিলো। কিন্তু বাবা হওয়ার সুবাদে লজ্জায় বোনটি বলতেও পারেনি। কাজ করতে গিয়ে দুর্ঘটনায় বাবার পায়ে রড লাগানোর পর থেকে গত কুরবানি ঈদে স্বপরিবারে নিজ গ্রাম নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় চলে এসেছি। কিন্তু এখানে এসেও গত ১১ এপ্রিল রাতে আনুমানিক সাড়ে ৯টার দিকে তার বোনকে দোকানে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে বাড়ির উত্তর পাশে ধানক্ষেতে নিয়ে হত্যার ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করে। পরে বোন বাড়ি এসে আত্মহত্যা করবে এমন কথা বলে আমাদের কাছে কান্না করে। ঘটনা শুনে আমাদের বাবা বলে কোনো ব্যবস্থা নিতে পারছিলাম না।

ঘটনাটি সবাইকে জানিয়ে দেবে বললে মঙ্গলবার (১৪ এপ্রিল) ক্ষিপ্ত হয়ে আমার বাবা বোনকে বেধড়ক মারধর করেন। এ সময় আমার বোন পালিয়ে চলে যায় থানায়। তার সঙ্গে আমরাও গিয়ে বিষয়টি পুলিশকে অবগত করলে রাতেই পুলিশ বাবাকে বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম