১৫ মিনিটের কালবৈশাখী ঝড়ে অন্ধকারে ২০ লাখ মানুষ

ঢাকা, সোমবার   ০২ আগস্ট ২০২১,   শ্রাবণ ১৮ ১৪২৮,   ২২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

১৫ মিনিটের কালবৈশাখী ঝড়ে অন্ধকারে ২০ লাখ মানুষ

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০০:১৪ ৩১ মার্চ ২০২১   আপডেট: ০০:১৭ ৩১ মার্চ ২০২১

কালবৈশাখী ঝড়। ফাইল ছবি

কালবৈশাখী ঝড়। ফাইল ছবি

মাত্র ১৫ মিনিটের কালবৈশাখী ঝড় ও আধাঘণ্টার বৃষ্টিতে হবিগঞ্জের নয়টি উপজেলা ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এতে বিদ্যুৎহীন হয়ে অন্ধকারে সাড়ে ২০ লাখ মানুষ।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে দশটার দিকে হবিগঞ্জের অধিকাংশ এলাকায় ঝড় ও বৃষ্টির সঙ্গে ধমকা হওয়া বয়ে গেছে। এতে বিদ্যুতের অসংখ্য খুঁটি ভেঙ্গে পড়েছে; এমনকি অনেকের ঘরবাড়িও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

জানা গেছে, প্রায় ১৫ মিনিটের মতো বিধংসী ঝড় হয়। যদিও পুরো পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে প্রায় ঘন্টাখানেক সময় লাগে। এরপর হালকা থেকে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি পড়ে আরও কিছুক্ষণ। ঝড়ের তোপে অনেক এলাকার গাছ ভেঙে পড়েছে। বিভিন্ন এলাকায় ছোট-বড় বিলবোর্ডও খসে রাস্তায় এসে পৌঁছেছে। বেশিরভাগ রাস্তায় গাছের ছোট-ছোট ডাল-পাতা পড়ে রয়েছে।

আরও পড়ুন: কালবৈশাখী ও শিলাবৃষ্টি নিয়ে দুঃসংবাদ দিলো আবহাওয়া অফিস

বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড ও হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি সূত্রে জানা গেছে, জেলায় কমপক্ষে ২০টি স্থানে বিদ্যুতের খুটি ভেঙ্গে পড়েছে। একটি স্থানে ট্রান্সফরমারও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এতে পুরো জেলায়ই বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড হবিগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আব্দুল মজিদ বলেন, ঝড় বন্ধ হওয়ার পর পরই লাইন মেরামতের কাজ শুরু হয়েছে। সংযোগ চালু না করার জন্য অনেক গ্রাহক ফোন করেছেন। তবে কখন বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হবে তা বলা যাচ্ছে না।

রাত সোয়া এগারোটায় শুধু মাধবপুর উপজেলার দুইটি সাব স্টেশন চালু হয়েছে বলেও জানিয়েছে হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে