কাঁঠাল গাছে ঝুলছিল মায়ের নিথর দেহ, দেখেই ছেলের স্ট্রোক

ঢাকা, শনিবার   ১৭ এপ্রিল ২০২১,   বৈশাখ ৪ ১৪২৮,   ০৪ রমজান ১৪৪২

কাঁঠাল গাছে ঝুলছিল মায়ের নিথর দেহ, দেখেই ছেলের স্ট্রোক

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:১৮ ৯ মার্চ ২০২১  

মৃতের বাড়িতে স্বজনদের ভিড়-ছবি সংগৃহীত

মৃতের বাড়িতে স্বজনদের ভিড়-ছবি সংগৃহীত

লক্ষ্মীপুরে বুকের ব্যথা সহ্য করতে না পেরে জোলেখা বেগম নামে এক গৃহবধূ ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। মায়ের ঝুলন্ত মরদেহ দেখে বড় ছেলে খোরশেদ আলম স্ট্রোক করেছেন। মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে সদর উপজেলার লাহারকান্দি ইউনিয়নের চাঁদখালী গ্রামের সর্দার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। 

জোলেখা বেগম সদর উপজেলার লাহারকান্দি ইউনিয়নের চাঁদখালী গ্রামের সর্দার বাড়ির মহিন উদ্দিনের স্ত্রী। তার চার ছেলে এবং এক মেয়ে রয়েছে।

পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, খাওয়া শেষে রাত ১২টার দিকে জোলেখা ঘুমাতে যায়। পরিবারের অন্যরাও ঘুমিয়ে পড়ে। রাতের কোনো একসময় ঘর থেকে বের হয়ে জোলেখা কাঠাল গাছের সঙ্গে রশি ঝুলিয়ে ফাঁস দেয়। সকালে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে গিয়ে পূত্রবধূ শাশুড়িকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়। পরে তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসে।

এদিকে মায়ের ঝুলন্ত মরদেহ দেখে বড় ছেলে সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক খোরশেদ আলম স্ট্রোক করেছেন। তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে স্থানীয়রা। 

জোলেখার পূত্রবধূ ফেন্সি বেগম বলেন, আমার শাশুড়ির বুকে ব্যথার অসুখ ছিল। ব্যথা উঠলে তিনি সহ্য করতে পারেন না। এ ছাড়া মাঝেমধ্যে তার মানসিক সমস্যা দেখা দিত। রাতে খাওয়া শেষে তিনি ঘুমাতে যান। কখন এ ঘটনা ঘটিয়েছেন তা বলতে পারছি না। সকালে ওঠে তার ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পাই। বুকের ব্যথা সহ্য করতে না পেরেই হয়তো তিনি আত্মহত্যা করেছেন।

লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার এসআই নজরুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। পরিবারের সদস্য ও স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলেছি। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন পেলে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ