নলকূপের পানি নেয়ায় দু’পক্ষের সংঘর্ষ, নিহত ১

ঢাকা, সোমবার   ১২ এপ্রিল ২০২১,   চৈত্র ২৯ ১৪২৭,   ২৮ শা'বান ১৪৪২

নলকূপের পানি নেয়ায় দু’পক্ষের সংঘর্ষ, নিহত ১

যশোর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:১৫ ৭ মার্চ ২০২১  

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

যশোরের কেশবপুরে গভীর নলকূপ (ডিপ টিউবয়েল) থেকে পানি নেয়াকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষে খোকন দাস নামে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন। রোববার সকালে উপজেলার সাগরদাঁড়ি ইউনিয়নের ধর্মপুর গ্রামে এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো সাতজন। পুলিশ এরই মধ্যে সংঘর্ষে জড়িত তিনজনকে আটক করেছে।

সাগরদাঁড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী মুস্তাফিজুল ইসলাম মুক্ত জানান, তার ইউনিয়নের ধর্মপুর গ্রামের কালিপদ দাস প্রতিবেশী বলরাম দাসের কাছ থেকে কিছুদিন আগে ৯০০ টাকা ধার নেয়। নির্ধারিত সময় পর টাকার তাগাদা দেয়ায় কালিপদ দাস তার বাড়ির মধ্যের গভীর নলকূপ থেকে বলরামদের পানি নিতে নিষেধ করেন। তারপরও রোববার সকালে বলরাম দাসের স্ত্রী ওই টিউবয়েল থেকে পানি নেয়ার সময় কালিপদ দাস ও বলরাম দাসের পরিবারের নারীরা কথা কাটাকাটিতে লিপ্ত হন।

একপর্যায়ে তাদের পরিবারের অন্য সদস্যরা এগিয়ে এলে সংঘর্ষ শুরু হয়। সংঘর্ষ চলাকালে উভয়পক্ষের ৮ জন আহত হন। গুরুতর আহত খোকন দাস ও তার স্ত্রী মানু দাসী, মাধব দাসের স্ত্রী কালীদাসী ও রবিন দাসের স্কুলপড়ুয়া মেয়ে কেয়া দাসকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুরে খোকন দাস মারা যান। এ ঘটনায় পুলিশ বলরাম দাসের স্ত্রী অশোকা রাণী, ছেলে সুজন দাস ও দুলাল দাসের স্ত্রী পূর্ণিমা দাসকে আটক করেছে।

নিহত খোকন দাসের ছেলে কালীপদ দাস ও রবিন দাস জানায়, বলরাম দাসের ছেলে সুজন দাস ও দুলাল দাসের ছেলে পঙ্কজ দাস তাদের পরিবারের উপর লাঠিসোঁটা এবং ইট দিয়ে হামলা করেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক প্রদীপ্ত চৌধুরী বলেন, আহতাবস্থায় খোকন দাসকে সকাল ১১টার দিকে হাসপাতালে আনা হয়। ওই সময় তিনি বমি করছিলেন। দুপুর ২টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

কেশবপুর থানার ওসি জসীম উদ্দীন জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাদন্তের জন্য যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে এবং ৩ জনকে আটক করা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম