ছেলের সন্ধানরত বাবার কাছ থেকে পুলিশ পরিচয়ে টাকা হাতিয়ে নিল প্রতারক

ঢাকা, শনিবার   ১৭ এপ্রিল ২০২১,   বৈশাখ ৪ ১৪২৮,   ০৪ রমজান ১৪৪২

ছেলের সন্ধানরত বাবার কাছ থেকে পুলিশ পরিচয়ে টাকা হাতিয়ে নিল প্রতারক

ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৯:৩৮ ৭ মার্চ ২০২১   আপডেট: ০৯:৪০ ৭ মার্চ ২০২১

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

নওগাঁর ধামইরহাটে কয়েকদিন থেকেই আবু সাঈদ নামের এক মাদরাসা ছাত্র নিখোঁজ রয়েছে। নিখোঁজ সন্তানের খোঁজে বাবা হাফিজ উদ্দীন বাবু নিজ এলাকায় মাইকিংয়ের মাধ্যমে সন্তানকে ফিরে পেতে প্রচার চালায়। সেই ছেলের খোঁজ দেয়ার কথা বলে অসহায় বাবার কাছ থেকে পুলিশ পরিচয় দিয়ে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে একটি প্রতারক চক্র।

গত মাসের ১৯ তারিখ বিকালে আবু সাঈদ ও প্রতিবেশি মো. মোমিন নিজ এলাকা আগ্রাদ্বিগুন থেকে বাস যোগে মহাদেবপুর থানার মাতাজীহাট পয়নারী হাফেজিয়া মাসরাসায় যায়। তারা দুজনই ওই মাদরাসার ছাত্র। পথেই ওই হাটে টুপি, গামছা কেনার কথা বলে আবু সাঈদ বাস থেকে নেমে পরেন এবং মোমিন মাদরাসায় চলে যায়। সেখান থেকে আবু সাঈদকে আর কোথায় খুঁজে পাওয়া যায়নি। এমন ঘটনার ১৫ দিনের মাথায় নিখোঁজ সন্তানের খোঁজে পিতা হাফিজ উদ্দীন এলাকায় মাইকিং এর মাধ্যমে ছেলের সন্ধান চেয়ে প্রচার চালায়। এ ঘটনায় মহাদেবপুর থানায় একটি জিডি করা হয়েছিল।

শনিবার দুপুরে মহাদেবপুর থানার এসআই আব্দুল মতিন পরিচয় দিয়ে তাকে ফোনে করে জানানো হয় যে, তার ছেলেকে মুমুর্ষ অবস্থায় পার্বতীপুর এলাকায় খুঁজে পাওয়া গেছে। পরে ওই থানার এসআই জাফরের নাম্বারে কথা বলার জন্য একটি নাম্বার প্রদান করেন।

ওই নাম্বারে ফোন করা হলে পার্বতীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ছেলের চিকিৎসা বাবদ ৮ হাজার ৬০০ টাকা বিকাশ করতে বলা হয়। ছেলের চিকিৎসার জন্য কোনো চিন্তা ভাবনা ছাড়াই টাকা পাঠিয়ে দেন হাফিজ উদ্দীন বাবু। টাকা দেবার পর থেকে কোনো নাম্বারেই আর যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। পরে ওইদিন রাতেই পরিবারের পক্ষ থেকে ধামইরহাট থানায় একটি জিডি করা হয়।

ধামইরহাট থানার ইন্সপেক্টর মেহেদী মাসুদ জানান, কোন কোন নাম্বার থেকে ফোন করা হয়েছিল এবং কোন নাম্বারে টাকা পাঠানো হয়েছে তা যাচাই করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএস